রেস্তোরাঁয় ইঁদুরের উৎপাতে অতিষ্ঠ সবাই। এ উৎপাত ঠেকানোর যেন কোনো উপায় পাচ্ছিলেন না ওই রেস্তোরাঁর মালিক-কর্মী কেউই। তাই এক কাণ্ড করে বসেন রেস্তোরাঁর খাবার গ্রাহকের কাছে সরবরাহের কাজে নিয়োজিত একজন কর্মী। গ্রাহকের বাড়িতে খাবার দিতে গিয়ে সেই বাড়ি থেকে বিড়াল চুরি করে নিয়ে যান তিনি।

এ কাণ্ড ঘটেছে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে। রেস্তোরাঁয় ইঁদুরের উপদ্রব থেকে রক্ষা পেতে বিড়াল চুরির কথা স্বীকার করেছেন ‘জাস্ট ইট’-এর ওই ডেলিভারি ম্যান। বিষয়টি থানা-পুলিশে গড়ানোর পর বিড়ালটি ফেরত পেয়েছেন মালিক।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ইনডিপেনডেন্টের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভিডিও ফুটেজে চুরির বিষয়টি ধরা পড়ে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় প্যারিসের ওই ভবন থেকে একজনকে একটি ডেলিভারি ব্যাগ ও একটি বিড়াল ধরে নিয়ে বেরিয়ে যেতে দেখা গেছে।

ওই ডেলিভারি ম্যান শিক্ষানবিশ আইনজীবী ক্যারোলিন সিমন-প্রোভোর বাড়িতে গিয়ে ওই চুরির ঘটনা ঘটান। ক্যারোলিন জানান, বিড়ালটি তাঁদের ভবনের নিরাপত্তাকর্মীর। খাবার ডেলিভারির পরই বিড়ালটি হারিয়ে যাওয়ার বিষয়টি বুঝতে পারেন তিনি।

ক্যারোলিন বলেন, পরদিন সকালে ভিডিওটি দেখার পর তাঁরা পুলিশ ডাকেন। সকাল আটটায় জাস্ট ইটে যোগাযোগ করেন। কিন্তু তাদের কাছ থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে সাড়ে ১০টায় ওই রেস্তোরাঁয় যান। তখন পর্যন্ত কেউ না আসায় অপেক্ষা করতে থাকেন। কর্মীরা আসার পর তাঁরা রেস্তোরাঁ মালিককে ডেকে আনেন। তিনি রাতের ওই ডেলিভারি ম্যানকে খুঁজে বের করেন।

বিজ্ঞাপন

ওই ডেলিভারি ম্যান শুরুতে বলেন, বিড়ালটি রাস্তায় পেয়েছেন। রেস্তোরাঁয় ইঁদুরের উৎপাত থাকায় সেটি নিয়ে এসেছেন। কিন্তু ভিডিওতে স্পষ্টভাবে তাঁকে বিড়ালটি নিয়ে ভবন থেকে বেরোতে দেখা গেছে। পরে সেটি তাঁর মালিকের কাছে ফিরিয়ে দেওয়া হয়।
ঘটনাটির তদন্ত চলছে বলে জাস্ট ইটের একজন মুখপাত্র নিশ্চিত করেছেন। রেস্তোরাঁর একজন কর্মীই ওই খাবার সরবরাহে গিয়েছিলেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

প্যারিসের পশ্চিমাঞ্চলের পিৎজা সরবরাহকারী ওই রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষের কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। বিষয়টি এখন পুলিশ তদন্ত করছে। এ নিয়ে মামলাও দায়ের হয়েছে।
এ ঘটনায় জাস্ট ইটের কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে সময়মতো সাড়া না পাওয়ার অভিযোগ করেছেন সিমন-প্রোভো। তিনি বলেন, যখন জরুরি দরকার ছিল, তখন তারা সাড়া দিতে অনেক সময় নিয়েছে। সৌভাগ্যবশত বিড়ালটি ঠিক আছে। এটাই আসল কথা।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন