দোনেৎস্ক অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ নিতে রাশিয়ার পদাতিক বাহিনী বিগত ২৪ ঘণ্টায় উল্লেখ করার মতো তেমন কোনো অগ্রগতি করতে পারেনি বলে জানিয়েছে বিবিসি।

উত্তরে খারকিভের, দক্ষিণে মিকোলাইভ ও মিকোলাইভের উত্তর–পূর্ব দিকের কিরিভি রিগ শহরের রুশ ক্ষেপণাস্ত্র হামলার কথা জানিয়েছে ইউক্রেনের কর্মকর্তারা।

ওডেসা যাওয়ার পথে কৌশলগতভাবে প্রধান নদীবন্দর মিকোলাইভ ইউক্রেনের প্রধান শস্য রপ্তানি কেন্দ্র। শহরটি রক্ষায় প্রাণপণ লড়াই চালাচ্ছে ইউক্রেনীয় বাহিনী।

ইউক্রেনের উপপ্রধানমন্ত্রী ইরিয়ানা ভেরেশ্চুক দক্ষিণের খেরসন ও জাপোরিঝিঝিয়া শহরে রাশিয়া নিয়ন্ত্রিত এলাকাগুলো থেকে বাসিন্দা বাসিন্দাদের অন্যত্র যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। এসব এলাকায় পাল্টা হামলা চালাবে ইউক্রেনের সেনারা।

বিবিসি বলছে, খেরসন শহরটি দখলে নিয়েছে রুশ বাহিনী। তবে পাল্টা প্রতিরোধ গড়ে ইউক্রেনীয় বাহিনী অঞ্চলটির কিছু এলাকা আবার নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে।

default-image

রাশিয়া ফসল ধ্বংস করছে বলে অভিযোগ করেছে অঞ্চলটির পুলিশ। ফসলের ক্ষেত পুড়ছে এমন একটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে বলেছে, ‘প্রতিদিনই এভাবে ফসলের ক্ষেত আগুনে পুড়ছে। শত শত হেক্টর গম, বার্লি ও অন্য ফসল ইতিমধ্যে পুড়ে গেছে।

পুলিশের আরও অভিযোগ, রুশ সেনারা শস্যভান্ডার ও কৃষি সরঞ্জাম ধ্বংস করছে। এ ছাড়া স্থানীয় বাসিন্দারা আগুন নেভাতে গেলে রুশ সেনারা তাদের বাধা দিচ্ছেন।

কিরিভি রিগের একটি স্কুল ও আবাসিক এলাকায় রাশিয়ার রকেট হামলায় ৪১ বছর বয়সী এক নারী নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছেন গভর্নর ভেলেন্তিন রেজিশেঙ্কো।

রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, ক্রামাতোরস্ককের কাছে চাসিভ ইয়ারে একটি অস্ত্রাগার ধ্বংস করেছে সেনারা। সেখানে যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি এম৭৭৭ হোইৎজার ছিল।

বিবিসি বলছে, দোনেস্কে রাশিয়ার পরবর্তী লক্ষ্য হতে যাচ্ছে সম্ভবত স্লোভিয়ানস্ক ও ক্রামাতোরস্কের নিয়ন্ত্রণ। অঞ্চলটি দখলে এই শহর দুটির নিয়ন্ত্রণ বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন