একই সময়ে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ গুরুত্বপূর্ণ বাজারগুলোতে দাম বাড়িয়ে দেয় কোম্পানিটি। নেটফ্লিক্স বলছে, রাশিয়ায় কার্যক্রম বন্ধের কারণে সাত লাখ গ্রাহক হারাতে হয়েছে তাদের। আর যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডাতে দাম বাড়িয়ে দেওয়ার পর আরও ছয় লাখ গ্রাহক কমে গেছে।

শেয়ারহোল্ডারদের কাছে লেখা এক চিঠিতে নেটফ্লিক্স আশঙ্কা জানিয়েছে, আগামী মে থেকে জুলাই মাস পর্যন্ত পরবর্তী তিন মাসে তাদের গ্রাহকসংখ্যা আরও ২০ লাখ কমতে পারে। এমন অবস্থায় পাসওয়ার্ড বিনিময়ের মাধ্যমে একই অ্যাকাউন্ট ভাগাভাগি করে ব্যবহারের ওপর কড়াকড়ি আরোপের ইঙ্গিত দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। এখন নতুন সদস্যদের সাইন আপকে গুরুত্ব দিয়ে নজরদারি চালাবে তারা।

নেটফ্লিক্সের হিসাব অনুযায়ী, ১০ কোটির বেশি ব্যবহারকারী পাসওয়ার্ড বিনিময় করে নিয়ম ভঙ্গ করছে। নেটফ্লিক্সের সহপ্রতিষ্ঠাতা রিড হাস্টিংস বলেন, ‘আমাদের যখন দ্রুত প্রসার হচ্ছিল, তখন অ্যাকাউন্ট ভাগাভাগি করে ব্যবহার বন্ধে আমরা খুব একটা গুরুত্ব দিয়ে কাজ করিনি। এখন আমরা অত্যন্ত কঠোরভাবে কাজটি করব।’

এর আগে সর্বশেষ ২০১১ সালের অক্টোবরে নেটফ্লিক্সের সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা কমতে দেখা গিয়েছিল। বর্তমানে বিশ্বজুড়ে নেটফ্লিক্সের ২২ কোটির বেশি সাবস্ক্রাইবার রয়েছে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন