default-image

ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতিতে একমত হয়েছে রাশিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি ও ইউক্রেন। ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে এটি কার্যকর হবে। আজ বৃহস্পতিবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বেলারুশের মিনস্কে ইউক্রেন নিয়ে দীর্ঘ বৈঠক শেষে এ ঘোষণা দেন। খবর এএফপির।
গত বুধবার এ দেশগুলোর মধ্যে ইউক্রেন সংকট নিয়ে বৈঠক শুরু হয়। দেশগুলো দেশটি থেকে ভারী অস্ত্রশস্ত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ার ব্যাপারেও একমত হয়েছে।
বৈঠক শেষে পুতিন এবং ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পেত্রো পেরেশেঙ্কো ১০ মাসব্যাপী সংঘর্ষের অবসান ঘটাতে কিয়েভ ও রাশিয়াপন্থী বিদ্রোহীদের মধ্যে এই রোডম্যাপ স্বাক্ষরের কথা জানান।
রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, ‘আমরা প্রধান বিষয়গুলোতে একমত হয়েছি। যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে আমরা একমত হয়েছি, যা ১৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাত থেকে কার্যকর হবে।’
ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট পোরেশেঙ্কো বলেন, ‘অত্যন্ত চাপের মধ্যে দুই পক্ষ একটি চুক্তিপত্রে স্বাক্ষর করেছে।’
পুতিন জানান, মিনস্ক চুক্তি বাস্তবায়নের বিষয়টি নিশ্চিত করতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নেওয়ার বিষয়ে তাঁরা সম্মত হয়েছেন। এ ছাড়া গত বছর বেলারুশে যে শান্তিচুক্তি হয়েছিল, তা বাস্তবায়নের বিষয়েও তঁারা একমত হয়েছেন। এ সময় সংবিধান সংশোধনের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন পুতিন। পাশাপাশি বিদ্রোহী অধ্যুষিত পূর্ব ইউক্রেনকে ‘বিশেষ মর্যাদা’ দেওয়ার ওপরও তিনি গুরুত্ব দেন।

ইউক্রেনের বিদ্রোহীরা এ ঐকমত্যকে শান্তিপূর্ণ সমাধানের উপায় হিেসবে মনে করছেন। রাশিয়াপন্থী বিদ্রোহীদের নেতা আলেক্সজেন্ডার জাখারচেঙ্কো বলেন, এ চুক্তি দীর্ঘ ১০ মাসের সংকট সমাধানে ভূমিকা রাখবে।

বিজ্ঞাপন
ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন