বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ন্যাটো থেকে ইউক্রেনকে দূরে রাখতে সামরিক শক্তি প্রয়োগের পক্ষে থাকলেও ৪৩ শতাংশ মনে করেন, দেশটিকে রাশিয়ার সঙ্গে একত্র করতে এ অভিযান ঠিক হবে না। তবে ৩৬ শতাংশ একত্র করার জন্য সামরিক শক্তি প্রয়োগের পক্ষে।

খুব স্বাভাবিকভাবেই রাশিয়ার জরিপের ঠিক উল্টো চিত্র ইউক্রেনে। দেশটির বেশির ভাগ মানুষ কোনো ধরনের শক্তি প্রয়োগের বিপক্ষে। দেশটির ৭০ শতাংশ মানুষ মনে করেন, ন্যাটো থেকে দূরে রাখতে তাঁদের দেশে রাশিয়ার সামরিক শক্তি প্রয়োগ ঠিক হবে না। আর ৭৩ শতাংশ মনে করেন, দুই দেশকে একীভূত করতে এ ধরনের অভিযান উচিত নয়।

এ জরিপে উভয় দেশের এক হাজারের বেশি করে মানুষ অংশ নেন। জরিপ চলে ৭ থেকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত।

প্রথম কে আঘাত হানবে

পশ্চিমা বিশ্ব বারবার এ অভিযোগ আনছে যে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন প্রতিবেশী ইউক্রেন সীমান্তে সৈন্য সমাবেশ করছে। দেশটিতে হামলার জন্যই এ কাজ করছে বলেও পশ্চিমা বিশ্বের একাধিক নেতা বলেছেন। কিন্তু দেশটির মাত্র ১৩ শতাংশ নাগরিক মনে করেন, রাশিয়া সেখানে আগে হামলা চালাবে। বেশির ভাগ রুশ নাগরিক মনে করেন না যে ইউক্রেন তাঁদের দেশে হামলা চালাবে। এমন আশঙ্কা আছে বলে মনে করেন মাত্র ৩১ শতাংশ। রাশিয়ার ৬৫ শতাংশ মানুষ দুই দেশের উত্তেজনার শান্তিপূর্ণ পরিসমাপ্তি দেখতে চান।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন