ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর প্রথমবার বিদেশ সফরে পুতিন

ভ্লাদিমির পুতিন
ছবি: রয়টার্স ফাইল ছবি

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন চলতি সপ্তাহে মধ্য এশিয়ার দুটি দেশ সফর করবেন। এটি হবে ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর পর পুতিনের প্রথম বিদেশ সফর। খবর রয়টার্সের।

স্থানীয় সময় গতকাল রোববার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে প্রচারিত প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর পশ্চিমা দেশগুলোর একের পর এক নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ে রাশিয়া। একে চীন, ভারত ও ইরানের মতো অন্য ক্ষমতাধর দেশগুলোর সঙ্গে রাশিয়ার শক্তিশালী বাণিজ্য সম্পর্ক গড়ে ওঠার পেছনে কারণ হিসেবে উল্লেখ করে থাকেন পুতিন।

গতকাল রোববার রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন রশিয়া ওয়ানের ক্রেমলিন প্রতিনিধি পাভেল জারুবিন বলেছেন, ভ্লাদিমির পুতিন তাজিকিস্তান ও তুর্কমিনিস্তান সফর করবেন।

প্রথমে তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবেতে দেশটির প্রেসিডেন্ট ইমোমালি রাখমোনের সঙ্গে বৈঠক করবেন পুতিন। রাশিয়ার ঘনিষ্ঠ মিত্র ইমোমালি সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে তাজিকিস্তানের শাসনক্ষমতায় আছেন।

এরপর তুর্কমিনিস্তান সফরে যাবেন রুশ প্রেসিডেন্ট। দেশটির রাজধানী আশগাবাতে আজারবাইজান, কাজাখস্তান, ইরান ও তুর্কমিনিস্তান কাস্পিয়ান দেশগুলোর নেতাদের সম্মেলনে অংশ নেবেন তিনি।

চলতি বছর পুতিনের সর্বশেষ বিদেশ সফরটি ছিল ফেব্রুয়ারির শুরুর দিকে। চীনের রাজধানী বেইজিং সফর করেছিলেন তিনি। সেখানে পুতিন এবং চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং বন্ধুত্ব চুক্তির কথা প্রকাশ করেছিলেন।

এর কয়েক ঘণ্টা পর অলিম্পিক শীতকালীন ক্রীড়া আসরের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দেন পুতিন।

রাশিয়া বলেছে, ইউক্রেনের সামরিক সক্ষমতা কমাতে ২৪ ফেব্রুয়ারি দেশটিতে সেনা পাঠিয়েছে তারা। রাশিয়াকে হুমকি দিতে পশ্চিমা বিশ্ব যেন এসব অস্ত্র ব্যবহার করতে না পারে তা নিশ্চিত করতে, জাতীয়তাবাদীদের উৎখাত করতে এবং পূর্বাঞ্চলের রুশভাষীদের সুরক্ষার জন্য এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।