বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউক্রেনের স্থানীয় কর্মকর্তারা অভিযোগ করেছেন, রুশ সেনাদের হাতে নিহত মারিউপোলের বেসামরিক নাগরিকদের সেখান সমাহিত করছেন রুশরা। তবে এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি মস্কো।

কয়েক সপ্তাহের বোমাবর্ষণ ও লড়াইয়ের পর শহরটির অধিকাংশ এলাকার নিয়ন্ত্রণ নেয় রুশ সেনারা। এখনো আজভস্তাল ইস্পাত কারখানা এলাকায় কিছু ইউক্রেনীয় সেনা অবরুদ্ধ হয়ে আছেন। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সেখানে অভিযান পরিচালনার পরিকল্পনা বাতিলের নির্দেশ দিয়েছেন। এর পরিবর্তে কারখানাটি অবরুদ্ধ করে রাখতে বলেছেন।

কথিত গণকবরটি মারিউপোলের ২০ কিলোমিটার দূরে মানহুশ নামের একটি গ্রামের কাছে। মাক্সার বলছে, সারিবদ্ধ কবরের চারটি ভাগ রয়েছে, যা প্রায় ৮৫ মিটার দীর্ঘ। বিবিসি আলাদাভাবে এ দাবির সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।

রুশ বাহিনী ওই একই জায়গায় বেসামরিক নাগরিকদের সমাহিত করছে বলে এর আগে এক বিবৃতিতে সিটি কাউন্সিল অভিযোগ করেছিল। তারা বলেছিল, রুশ বাহিনী পরিখা খনন করছে এবং সেখানে মরদেহ নিয়ে যেতে ডাম্প লরি ব্যবহার করছে। তারা ওপর থেকে নেওয়া নিজস্ব একটি ছবিও প্রকাশ করেছিল। সিটি কাউন্সিলের দাবি, পাশের সমাধিক্ষেত্রটির চেয়ে গণকবরটি ইতিমধ্যে দ্বিগুণ বড় হয়ে গেছে।

সিটি মেয়র ভাদিম বোইচেঙ্কো বলেছেন, মারিউপোলে হাজার হাজার বেসামরিক নাগরিক মারা পড়তে পারেন। তবে ইউক্রেন ও তার পশ্চিমা মিত্রদের ব্যাপক হারে বেসামরিক নাগরিকদের হত্যার অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে রাশিয়া।

এপ্রিলের শুরুর দিকে স্যাটেলাইট চিত্রের বরাত দিয়ে মাক্সার ইউক্রেনের বুচা শহরে ৪৫ ফুট দীর্ঘ পরিখায় গণকবর শনাক্তের দাবি করে। রাজধানী কিয়েভের ৩৭ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর বুচা। প্রায় এক মাস ধরে রুশ বাহিনীর দখলে থাকার পর এর নিয়ন্ত্রণ নেয় ইউক্রেন। মেয়র আনাতোলি ফেদোরুক জানান, বুচায় কমপক্ষে ৩০০ বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন