বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রাশিয়ার হামলার ঘটনায় ‘আমরা যেমন দুঃখিত, তেমনই লজ্জিত’ বলে মন্তব্য করেন মুরাতোভ। এ সময় অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘পুতিন পারমাণবিক বোমার বোতাম নিয়ে এমনভাবে খেলছেন, যেন এটি কোনো বিলাসবহুল গাড়ির চাবির রিং।’ পুতিনকে উদ্দেশ করে তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘এরপর কি পারমাণবিক হামলা?’

নোভায়া গ্যাজেটার পরবর্তী সংস্করণ রাশিয়ার পাশাপাশি ইউক্রেনের ভাষাতেও প্রকাশ করা হবে বলে জানান নোবেলজয়ী এই সাংবাদিক। তিনি বলেন, ‘আমরা ইউক্রেনকে শত্রু বিবেচনা করি না। ইউক্রেনের ভাষাকেও শত্রুর ভাষা মনে করি না। আর এমনটি কখনো করাও হবে না।’

রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ঘোষণার পর স্থানীয় সময় আজ ভোর থেকেই ইউক্রেনের স্থল, আকাশ ও নৌপথে হামলা শুরু করে রাশিয়া। হামলা শুরুর পরপরই ইউক্রেনের শহরগুলোতে ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়া শুরু হয়। এখন পর্যন্ত ইউক্রেনের ৪০ সেনাসদস্যসহ অন্তত ৫০ জন নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে কিয়েভ।

এদিকে হামলার পাল্টা জবাব দেওয়ার দাবি করেছে কিয়েভও। রাশিয়ার ছয়টি বিমান ও একটি হেলিকপ্টার ভূপাতিত করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দেশটি। এ ছাড়া রাশিয়া-সমর্থিত বিচ্ছিন্নতাবাদীরা একটি শহরে হামলা করার পর তা প্রতিহত করার সময় প্রায় ৫০ জন ‘দখলদার রুশ’ নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী।

গত সোমবার ইউক্রেনে রুশ সমর্থনপুষ্ট বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত দুটি অঞ্চলকে স্বাধীন রাষ্ট্র হিসেবে ঘোষণা দেন পুতিন। এর আগে দীর্ঘ সময় ধরে ইউক্রেন সীমান্তে সেনা মোতায়েন করে রাখে মস্কো। দেশটিতে হামলা চালাতেই রাশিয়ার এ তত্পরতা বলে দাবি করে আসছিল পশ্চিমা দেশগুলো।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন