default-image

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের কারণে আরোপিত বিধিনিষেধের মধ্যে নিজের জন্মদিনের অনুষ্ঠান আয়োজন করেছিলেন নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী আর্না সোলবার্গ। সেই পারিবারিক জমায়েতে করোনার সামাজিক দূরত্বের বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের ঘটনা ঘটেছে। ফলে জরিমানা করা হয়েছে প্রধানমন্ত্রীকে। তাঁকে এ জন্য গুনতে হবে ২০ হাজার নরওয়েজিয়ান ক্রোন। নরওয়ের পুলিশ আজ শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছে। বার্তা সংস্থা রয়টার্সের খবরে এ কথা বলা হয়।

দেশটির পুলিশপ্রধান ওলে সায়েভেরুদ এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। আর্না সোলবার্গ নরওয়ের দুই মেয়াদের প্রধানমন্ত্রী। তিনি তাঁর ৬০তম জন্মদিন উদ্‌যাপনে গত ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ দিকে একটি পাহাড়ি রিসোর্টে ওই পারিবারিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছিলেন। অনুষ্ঠানে তাঁর ১৩ জন পারিবারিক সদস্য অংশ নিয়েছিলেন। করোনার বিধি ভেঙে এ ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য আর্না সোলবার্গ গত মাসে ক্ষমা চেয়েছিলেন।

বিজ্ঞাপন

করোনা মহামারি মোকাবিলায় নরওয়েতে কোনো অনুষ্ঠানে ১০ জনের বেশি লোকের অংশগ্রহণের ওপর দেশটির সরকার নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে। এ নিষেধাজ্ঞা ভাঙার জন্যই জরিমানা খেলেন প্রধানমন্ত্রী আর্না সোলবার্গ।

নরওয়েতে পুলিশ যদিও এ ধরনের ঘটনায় বেশির ভাগ ক্ষেত্রে জরিমানা করে না। কিন্তু দেশটির প্রধানমন্ত্রীর ক্ষেত্রে তা করা হয়েছে। কারণ, ব্যাখ্যা করতে গিয়ে দেশটির পুলিশ বলেছে, করোনার বিধিনিষেধ আরোপের ক্ষেত্রে সরকারি দায়িত্বের অগ্রভাগে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। কিন্তু তিনিই বিধি ভাঙছেন। এ জন্য তাঁকে জরিমানা করা হয়েছে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন