default-image

স্থানীয় বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র সে। বয়স মাত্র ৯ বছর, নাম লাপো দাতুরি। ইতালির মিলান শহরের উপকণ্ঠে মা–বাবার সঙ্গে থাকে সে। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে এলাকাটিতে লকডাউন শুরু হয় ৮ মার্চ। হুট করে তার স্কুল বন্ধ হয়ে যায়। এ কারণে বন্ধ খেলাধুলা। এমনকি তার প্রিয় কুকুরকে নিয়ে পুকুরপাড়েও যাওয়া বারণ। তার সহপাঠীরা বাড়িতে থেকে থেকে তত দিনে বিরক্ত হয়ে ওঠে। লাপো তখন করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে। আর এ যুদ্ধ চলে খেলার ছলে। তারই তৈরি করা কম্পিউটার গেমে। আর এভাবেই করোনাকালের দিনগুলো আনন্দেই কাটিয়ে দিচ্ছে ওরা। 

লাপো বলে, ‘কোভিড–১৯–এর কারণে আমার শখের সব খেলাধুলা বন্ধ হয়ে যায়। কী করি! বাবাকে গিয়ে বলি। তাঁর পরামর্শে অনলাইনে প্রশিক্ষণ নিই। এরপর কম্পিউটার গেমটি তৈরি করি। এর নাম দিয়েছি সেরবা–২০। এখন সহপাঠীদের সঙ্গে অনলাইনে গেম খেলি।’ সে বলে, এই গেমের খেলোয়াড়েরা মহাকাশযানে চড়ে যুদ্ধ নামে। প্রতিপক্ষ কোভিড–১৯। ওরা করোনাভাইরাস মেরে সাফ করে। 

লাপোর মা ফ্রান্সেসকা জামবোনিন এতে খুশি। তিনি বলেন, ‘ছেলে মেধাবী। সে তার এই বন্ধ সময় পার করার একটা পথ নিজেই তৈরি করেছে।’

 এনডিটিভি

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0