বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ডগটিভির শীর্ষ কর্মকর্তারা বলেছেন, মালিকের সঙ্গে বিচ্ছেদের পর কুকুরের একাকিত্ব, বিষণ্নতার মতো বিষয়গুলো নিয়ে অনুষ্ঠান প্রচার করা হবে। এ ছাড়া কীভাবে পোষা প্রাণীটিকে দেখভাল করবেন, তার মনের অবস্থা বুঝবেন, সেই বিষয়ে গৃহকর্তাদের সাহায্য করতে সংশ্লিষ্ট অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা হবে।

গত বছর করোনাভাইরাস মহামারির কারণে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে করোনা বিধিনিষেধ শুরু হয়। তখন মানুষ ঘরবন্দী হয়ে পড়ে। এর ফলে বাড়িতে কুকুর পোষার পরিমাণ ব্যাপক হারে বেড়ে যায়। কিন্তু বিধিনিষেধ উঠে যাওয়ার পর গৃহকর্তাদের অনেকে কর্মস্থলে ফিরেছেন। শুরু হচ্ছে স্বাভাবিক কর্মচাঞ্চল্য। ফলে খেলার সাথিকে আর বেশি সময় দিতে পারছেন না অনেকে। এতে পোষা প্রাণীর, বিশেষ করে পোষা কুকুরের একাকিত্বে ভোগার আশঙ্কা তৈরি রয়েছে। কুকুর যাতে বিষণ্নতায় না ভোগে, হাসিখুশি থাকে, তার টনিক হিসেবে বিশেষ টিভি অনুষ্ঠান তৈরি করছে ডগটিভি।

ডগটিভির প্রযোজকেরা এক বিবৃতিতে বলেছেন, প্রাণীর শারীরিক ও মানসিক অবস্থার বিভিন্ন দিক নিয়ে বিস্তর গবেষণার পরই চ্যানেলটি চালু করা হয়েছে। টিভির বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আধেয় (কনটেন্ট) প্রাণীদের মানসিক ও শারীরিকভাবে উদ্দীপ্ত করতে সাহায্য করবে।

ডগটিভির প্রধান বিজ্ঞানী অধ্যাপক নিকোলাস ডডম্যান বলেছেন, ডগটিভি কুকুরের মালিকদের জন্য দারুণ সম্পদ। যখন কুকুরকে বাড়িতে রেখে যাবেন, তখন তার আচরণগত সমস্যা নিয়ন্ত্রণে রাখতে দারুণ সাহায্য করবে টিভিটির অনুষ্ঠান।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন