বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বলেছেন, ইউক্রেনীয় বাহিনীর সাফল্য দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় খারকিভে রুশ বাহিনীকে ক্রমে পিছু হটিয়ে দিচ্ছে। যুদ্ধ শুরুর পর থেকে শহরটিতে অবিরাম বোমাবর্ষণ করা হয়েছে। ভিডিও ভাষণে তিনি আরও বলেন, ‘তবে আমি জনগণের প্রতি আহ্বান জানাতে চাই...যাতে অতিমাত্রায় আবেগ ছড়ানো না হয়। আমাদের অতিমাত্রায় নৈতিক চাপ দেওয়ার মতো পরিবেশ সৃষ্টি করা উচিত হবে না, যেখানে প্রতি সপ্তাহে এবং প্রতিদিন বিজয় প্রত্যাশিত হয়ে দাঁড়ায়।’
এদিকে ওয়াশিংটনে শীর্ষ মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তা জানিয়েছেন, ইউক্রেন যুদ্ধে কোনো পক্ষ তেমন আর অগ্রসর হতে পারছে না। জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার পরিচালক এভরিল হেইনস বলেছেন, দীর্ঘমেয়াদি যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দনবাসে রাশিয়ার বিজয়ে যুদ্ধের সমাপ্তি না-ও হতে পারে।

তবে বিশ্লেষকেরা মনে করছেন, খারকিভ এই যুদ্ধে নতুন ধাপের ইঙ্গিত হতে পারে, ইউক্রেনীয় বাহিনী এখন পাল্টা হামলা চালাতে যাচ্ছে। কয়েক সপ্তাহ ধরে রুশ বাহিনী ব্যাপক হামলা চালিয়েও সেখানে সাফল্য পায়নি।

ইউক্রেনে হামলা শুরুর পর থেকে খারকিভের উপকণ্ঠ দখল করে নেয় রুশ বাহিনী। তাদের পিছু হটিয়ে দেওয়ার মাধ্যমে ইউক্রেনীয় বাহিনী পেছনের সরবরাহ লাইনে আঘাত হানতে যাচ্ছে। এই সরবরাহ লাইন আরও দক্ষিণে থাকা রাশিয়ার মূল আক্রমণকারী বাহিনীকে টিকিয়ে রেখেছে।

লন্ডনের চিন্তক প্রতিষ্ঠান রুসির নিল মেলভিন বলেন, ‘ইউক্রেনীয় বাহিনী রুশ সীমান্তের দিকে এগোচ্ছে। ফলে শুরুর দিনগুলোতে উত্তর-পূর্ব ইউক্রেনে রুশ বাহিনীর যত অর্জন, সেগুলো ক্রমেই হাতছাড়া হতে যাচ্ছে।’

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে ক্ষেপণাস্ত্র ও বিমান হামলার পাশাপাশি উত্তর, পূর্ব ও দক্ষিণ দিক থেকে স্থল অভিযান শুরু করে রাশিয়া। পরে পশ্চিমা অস্ত্রে সমৃদ্ধ ইউক্রেনীয় বাহিনীর প্রতিরোধের মুখে উত্তর দিক থেকে সেনা সরিয়ে পূর্ব ও দক্ষিণাঞ্চলে হামলা জোরদার করে রুশ বাহিনী।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন