বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

জলবায়ু পরিবর্তন রোধে আগামী নভেম্বরে যুক্তরাজ্যের স্কটল্যান্ডের গ্লাসগোয় সম্মেলনে বসবেন বিশ্বনেতারা। বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলন-কপ২৬-এর আগে বিশ্বনেতাদের সামনে সেই বিষয়গুলো উপস্থাপন করলেন বরিস জনসন।

বরিস জনসন সতর্ক করে বলেন, জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে যে ক্ষতি হবে তা অপূরণীয়। তিনি বলেন, ‘আমরাই পৃথিবীকে বসবাসের অনুপযোগী করে তুলছি। তবে এ বসবাস অনুপযোগিতা শুধু আমাদের জন্য নয়, অন্যান্য প্রাণীর জন্য অনুপযোগী হয়ে উঠেছে পৃথিবী।’ এ কারণেই গ্লাসগোর সম্মেলন গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন তিনি।

এদিকে ২০৩০ সাল নাগাদ কার্বন নিঃসরণ কমাতে কয়লানির্ভর বিদ্যুৎ উৎপাদন বন্ধে উন্নত দেশগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বরিস জনসন। যদিও জলবায়ু পরিবর্তন রোধে এ প্রতিশ্রুতি দেশগুলো আগেই দিয়েছিল, তারপরও বিষয়টি সামনে এনেছেন বরিস জনসন। এ জন্য নিজ দেশের কার্বন নিঃসরণ কমিয়ে আনা ও বনভূমি সংরক্ষণের বিষয়কে সামনে এনেছেন তিনি। এ ছাড়া জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলায় যে ষড়যন্ত্র তত্ত্ব প্রচলিত রয়েছে, তা–ও খারিজ করেন তিনি। তিনি আরও বলেন, ‘আমি ঠিক সেই ধরনের কোনো পরিবেশবাদী নই, যিনি মানবতা নিয়ে বাড়াবাড়ি করে একধরনের সুখ অনুভব করবেন।’ বরিস বলেন, ‘পরিবেশবাদীদের আন্দোলনকে আমি পুঁজিবাদবিরোধী কোনো আক্রমণ হিসেবে দেখি না।’

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন