default-image

দোকানে ঢুকেছে সশস্ত্র ডাকাত। লুটে নিচ্ছে অর্থকড়ি। তবে দোকানের তটস্থ ব্যবস্থাপক হঠাৎ অন্য কারণে কিংকর্তব্যবিমূঢ় হয়ে পড়লেন। কারণ, ক্ষুধার্ত ডাকাত তাঁর কাছে খেতে চেয়েছে চিকেন নাগেট। এতে যেন বিপদ গেল আরও বেড়ে। কেননা তাঁর দোকানে ওই সময় চিকেন নেই। শেষে ম্যাকমাফিনের বিনিময়ে দফারফা করতে হয়েছে ক্ষুধার্ত ডাকাতের সঙ্গে।

ঘটনাটি ঘটেছে যুক্তরাজ্যের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ম্যাকডোনাল্ডসের একটি আউটলেটে। ঘটনাটির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমসহ ইন্টারনেটে ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়েছে। অনেকেই এর সঙ্গে ১৯৯৩ সালের একটি হলিউড চলচ্চিত্রের মিল খুঁজে পাচ্ছেন। ফলিং ডাউন নামের ওই চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন মাইকেল ডগলাস।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির খবরে বলা হয়, ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়া ডাকাতির ঘটনার ওই ভিডিওতে দেখা যায়, রুডি ব্যাটেন নামের ২২ বছর বয়সী এক যুবক নকল আগ্নেয়াস্ত্র হাতে ম্যাকডোনাল্ডসের ওই আউটলেটে ঢুকেছেন। আউটলেটের ব্যবস্থাপকের মাথায় সেই আগ্নেয়াস্ত্র ধরে লুটে নিলেন অর্থকড়ি।

বিজ্ঞাপন

কয়েকটি ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমের খবরে জানানো হয়, অর্থকড়ি নিয়ে বেরিয়েই যাচ্ছিলেন রুডি। হঠাৎ তিনি ব্যবস্থাপকের কাছে চিকেন নাগেট চেয়ে বসেন। কিন্তু তখন সকাল সাতটা। ওই সময় ম্যাকডোনাল্ডসের খাবারের মেন্যুতে চিকেন নাগেট ছিল না। শেষমেশ ক্ষুধার্ত ডাকাতকে ম্যাকমাফিন দিয়ে শান্ত করতে হয়েছে।

পরে অবশ্য সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ দেখে রুডি ব্যাটেনকে ঠিকই ধরে ফেলে পুলিশ। স্থানীয় একটি আদালত তাঁকে ছয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন।

এদিকে ওই ঘটনার ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ার পর অনেক ব্যবহারকারীই নানা রকম মন্তব্য করেন। বেশির ভাগ ব্যবহারকারী ঘটনাটির সঙ্গে মাইকেল ডগলাসের ১৯৯৩ সালের চলচ্চিত্র ফলিং ডাউন-এর মিল খুঁজে পাচ্ছেন। ওই চলচ্চিত্রের একটি দৃশ্যে দেখা যায়, বেলা সাড়ে ১১টায় ডগলাস একটি ক্যাফেতে ঢুকে সকালের নাশতা দিতে বলছেন। কিন্তু তখন সকালের নাশতা পরিবেশনের সময় পেরিয়ে গেছে। এই কথা জানিয়ে এক কর্মী ডগলাসকে বলেন, তাঁকে দুপুরের খাবারের মেন্যু থেকে কিছু একটা অর্ডার করতে হবে। এই কথা শুনে শীতল কণ্ঠে ডগলাস বলেন, ‘রিক, তুমি কি ওই কথাটা কখনো শুনেছ যে গ্রাহকের কথাই শেষ কথা?’ এরপরই তাঁকে আগ্নেয়াস্ত্র বের করতে দেখা যায়।

বিজ্ঞাপন
ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন