default-image

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের বড় সমালোচক অ্যালেক্সি নাভালনিকে মস্কোর বাইরে বন্দিশিবিরে পাঠানো হয়েছে। রাশিয়ার কারাপ্রধান আলেক্সান্ডার কালাশনিকভ আজ শুক্রবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

এর আগে নাভালনির আইনজীবী এবং একটি মানবাধিকার সংগঠন অভিযোগ করেছিল, নাভালনিকে কারাগার থেকে অজ্ঞাত জায়গায় সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাঁর সন্ধান পরিবারের সদস্যরা কিংবা কাছের লোকজন জানেন না।

গত ১৭ জানুয়ারি জার্মানির বার্লিন থেকে রাশিয়ার মস্কোয় ফেরেন নাভালনি। তাঁকে বিমানবন্দরেই গ্রেপ্তার করা হয়। ২ ফেব্রুয়ারি তাঁকে সাড়ে তিন বছরের কারাদণ্ড দেন মস্কোর একটি আদালত। সেই থেকে তিনি কারাগারেই আছেন।

২০১৪ সালের জালিয়াতির একটি মামলায় স্থগিত সাজার শর্ত লঙ্ঘনের দায়ে স্থগিত সাজা কারাদণ্ডে রূপান্তর করা হয়। এ মামলায় তিনি ইতিমধ্যে এক বছর গৃহবন্দী ছিলেন। এই সাজার বিরুদ্ধে নাভালনি আপিল করলে ২০ ফেব্রুয়ারি বিচারক দিমিত্রি বালাসোভ তা খারিজ করেন। তবে তাঁর সাজা ৬ সপ্তাহ কমিয়ে দেওয়া হয়।

নাভালনির অভিযোগ, তাঁর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলাটি রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত। অবশ্য কর্তৃপক্ষ এ অভিযোগ বরাবরই নাকচ করেছে। আদালতের রায় অনুযায়ী নাভালনিকে এখন আড়াই বছরের বেশি সময় কারাগারে থাকতে হবে।

তবে ইউরোপীয় মানবাধিকার আদালত নাভালনির বিরুদ্ধে রুশ আদালতের রায়কে বেআইনি ঘোষণা করেছেন। ওই আদালত তাঁকে মুক্তি দেওয়ারও নির্দেশ দিয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

কিন্তু রুশ কর্তৃপক্ষ ইউরোপীয় আদালতের নির্দেশকে ‘বেআইনি’ আখ্যা দিয়েছে। একই সঙ্গে বিষয়টিকে রাশিয়ার অভ্যন্তরীণ বিষয়ে ‘অগ্রহণযোগ্য’ হস্তক্ষেপ বলেও দাবি করেছে।

এ পরিস্থিতির মধ্যেই নাভালনির আইনজীবীদের একজন ভাদিম কবজেভ টুইট করেন, নাভালনিকে মস্কোর কারাগার থেকে অজ্ঞাত জায়গায় নেওয়া হয়েছে। পরে তিনি জানান, এই রাজনীতিককে কোনো বন্দিশিবিরে নেওয়া হতে পারে।

নাভালনির আইনজীবীর ওই বক্তব্যের পরপরই রুশ কারাপ্রধানের বক্তব্যটি পাওয়া যায়। আলেক্সান্ডার কালাশনিকভ বার্তা সংস্থা আরআইএ নভোস্তিকে বলেন, ‘তাঁকে (অ্যালেক্সি নাভালনি) সেখানেই নেওয়া হয়েছে, আদালতের নির্দেশ মোতাবেক তাঁর যেখানে থাকার কথা।’

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন