default-image

অবশেষে অনশন ভেঙেছেন রাশিয়ার বিরোধী নেতা কারাবন্দী অ্যালেক্সি নাভালনি। কারাগারে সুচিকিৎসার দাবিতে ২৪ দিন ধরে অনশন করছিলেন তিনি। আজ শুক্রবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া পোস্টে নাভালনি নিজেই অনশন ভাঙার কথা জানিয়েছেন। খবর এএফপির।

পোস্টে নাভালনি লিখেন, চিকিৎসকেরা তাঁকে দুবার দেখে গেছেন এবং পরীক্ষা-নিরীক্ষাও করা হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এ পরিস্থিতিতে আমি অনশন শেষ করছি।’
এর আগে বৃহস্পতিবার মস্কোর পূর্বের ভ্লাদিমির অঞ্চলের একটি হাসপাতালে নাভালনির স্বাস্থ্য পরীক্ষা করেন তাঁর চিকিৎসকেরা। এরপর এক বিবৃতিতে নাভালনির পাঁচজন চিকিৎসক তাঁর প্রতি ‘অনতিবিলম্বে অনশন ভাঙার’ আহ্বান জানান।

চিকিৎসকেরা সতর্ক করে বলেন, তা না হলে নাভালনি মারা যেতে পারেন।

চিকিৎসকেরা জানান, নাভালনির মেডিকেল টেস্টের ফলাফলের ভিত্তিতেই একটি উপসংহারে এসেছেন তাঁরা। কারাগারে যাওয়ার আগে ওই চিকিৎসকেরা নাভালনির চিকিৎসা করেছিলেন। তবে কারাগারে গিয়ে নাভালনিকে দেখার অনুমতি পাননি তাঁরা।

বিজ্ঞাপন

নাভালনি গত ৩১ মার্চ থেকে কারাগারে অনশন শুরু করেন। পিঠে তীব্র ব্যথা ও পায়ের অসাড়তার জন্য পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা না পেয়ে তিনি অনশনে যান। নাভালনির পরিবার, চিকিৎসক, আইনজীবী ও সহযোগীরা কিছুদিন ধরে বলে আসছিলেন যে তাঁর স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালো নয়। তাঁর অবস্থা এমন যে তিনি কয়েক দিনের মধ্যে মারা যেতে পারেন।

এদিকে নাভালনির কিছু হলে তার জন্য মস্কো দায়ী থাকবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন। উদ্বেগ জানিয়ে চিকিৎসার জন্য জরুরি ভিত্তিতে তাঁকে রাশিয়া থেকে বাইরের দেশে নেওয়ার আহ্বান জানান জাতিসংঘের মানবাধিকারবিষয়ক বিশেষজ্ঞরা। অভ্যন্তরীণ ও আন্তর্জাতিক চাপ বাড়তে থাকায় নাভালনিকে কারাগার থেকে কারা হাসপাতালে পাঠায় রুশ কর্তৃপক্ষ। সেখানেই চিকিৎসকেরা তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষার সুযোগ পান।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন