default-image

রাশিয়ার ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলে ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে মস্কো প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভ। আজ শুক্রবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

রাশিয়ার বিরোধী নেতা অ্যালেক্সি নাভালনিকে গ্রেপ্তার নিয়ে পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে মস্কোর উত্তেজনা বিরাজ করছে। এমনকি এখন নিষেধাজ্ঞা আরোপেরও আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

এদিকে লাভরভের বক্তব্যকে ‘বিব্রতকর’ বলে মন্তব্য করেছে জার্মানির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বার্লিনে নিয়মিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র বলেন, এই বিবৃতি ‘উদ্বেগজনক ও অবোধগম্য’।

তিনজন ইউরোপিয়ান কূটনীতিক রয়টার্সকে গতকাল বৃহস্পতিবার বলেন, ইইউ ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে। এমনকি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মিত্রদের সম্পদ স্থগিত করতে পারে। এ মাসেই এটি হতে পারে। এরই মধ্যে ফ্রান্স ও জার্মানি এমন ইঙ্গিতও দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত সপ্তাহে ইইউর পররাষ্ট্রনীতিবিষয়ক প্রধান মস্কোতে থাকার পরও তাঁকে না জানিয়ে জার্মানি, পোল্যান্ড ও সুইডেনের কূটনীতিকদের বহিষ্কার করে রাশিয়া। এখন প্যারিস ও বার্লিন এর পাল্টা জবাব দিতে প্রস্তুত।

এক সাক্ষাৎকারে রাশিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী লাভরভের কাছে জানতে চাওয়া হয়, মস্কো কি নিজে থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করতে চায়? জবাবে তিনি বলেন, ‘আমরা যদি নতুন করে আবার কোনো নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়ি, যাতে আমাদের অর্থনীতি ঝুঁকির মুখে পড়তে পারে, তাহলে আমরা এর জন্য প্রস্তুত।’ তিনি আরও বলেন, ‘আমরা বিশ্ব থেকে নিজেদের বিচ্ছিন্ন করতে চাই না। কিন্তু আমরা এটি করতে প্রস্তুত। আপনি যদি শান্তি না চান, তবে যুদ্ধের জন্য প্রস্তুতি নিন।’

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন