বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এবারের নির্বাচনে বার্লিনের মেয়র পদের জন্য প্রার্থী হয়েছিলেন এসডিপির ফ্রানজিসকা গিফে। ৪৩ বছর বয়সী এই নারী এর আগে আঙ্গেলা ম্যার্কেলের জোট সরকারের অধীনে পরিবারবিষয়ক মন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ম্যার্কেল সরকারের আমলে তাঁর দল সিডিইউর জোটসঙ্গী ছিল এসপিডি।

বার্লিনে এত দিন মেয়রের দায়িত্বে ছিলেন এসপিডির মাইকেল মুলার। তবে তিনি এবারের নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। ফলে মেয়র পদে একই দল থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ফ্রানজিসকা গিফে।

জার্মানির গণমাধ্যম জেডডিএফের পূর্বাভাস অনুযায়ী, এবারের নির্বাচনে ২৬ শতাংশ ভোট পেয়েছে এসপিডি। ম্যার্কেলের দল সিডিইউ ২৪ দশমিক ৫ শতাংশ ভোট পেয়ে সামান্য ব্যবধানে হারতে চলেছে।

তবে শেষ পর্যন্ত যে দলই জিতুক না কেন, জোট বেঁধেই তাদের পরবর্তী সরকার গঠন করা হবে। জোট বেঁধে সরকার গঠন জার্মানিতে একটি ঐতিহ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ, সরকার গঠনের মতো নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠ ভোট কোনো দলই পায় না। এবারের জোটে সিডিইউ ও এসপিডি ছাড়াও জোট সরকারের অংশ হতে পারে পরিবেশবাদী গ্রিন পার্টি ও লিবারেল ফ্রি ডেমোক্র্যাট পার্টি (এফডিপি)।

এদিকে জার্মানির নির্বাচনে এসপিডির জয় চূড়ান্ত হলে নতুন চ্যান্সেলর হতে যাচ্ছেন দলটির নেতা ওলাফ শোলৎজ। এর মধ্য দিয়ে দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর এসপিডি থেকে চতুর্থ কোনো নেতা দেশটির চ্যান্সেলর হবেন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন