default-image

টেলিভিশন কোম্পানি মিডিয়াপ্রোর বিরুদ্ধে গুরুতর অভিযোগ এনেছে স্প্যানিশ পুলিশ। কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাপন্থীদের সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির যোগসূত্র খতিয়ে দেখেছে তারা। পুলিশ বলছে, প্রতিষ্ঠাতা হিয়াওমে রাউর্স ও হেরার্ড রমির চেয়ে মিডিয়াপ্রো প্রতিষ্ঠানটি বরং ‘অধিক গর্বিত’ কাতালান। গত অক্টোবরে অনুষ্ঠিত স্বাধীনতার জন্য সংবিধানবহির্ভূত গণভোটের সময় বিদেশি সাংবাদিকদের জন্য তৈরি একটি প্রেস সেন্টারে অর্থায়ন করা এবং ওই ভোটের সপক্ষে একটি ডকুমেন্টারি প্রচারের দায়ে ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠিত এ টেলিভিশন কোম্পানির বিরুদ্ধে তদন্ত চালানো হচ্ছে। মিডিয়াপ্রো অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

মিডিয়াপ্রোর তৃতীয় প্রতিষ্ঠাতা তেতচো বেনেত মাদ্রিদের প্রধান শিল্পমেলা চলার সময় বিতর্কিত এক সেট আলোকচিত্র কেনেন, যেখানে গণভোটের উদ্যোক্তাদের রাজনৈতিক বন্দী হিসেবে দেখানো হয়েছে।

জার্মান কর্তৃপক্ষ কাতালোনিয়ার সাবেক প্রেসিডেন্ট কার্লোস পুজেমনকে গ্রেপ্তারের পর আবারও সেখানে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে।

১৫ ফেব্রুয়ারি বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান ওরিয়েন্ট হনতাই ক্যাপিট্যাল ১ দশমিক ৯ বিলিয়ন ইউরো অর্থমূল্যের ইমাজিনিয়া নামক ফার্মের ৫৩ দশমিক ৫ শতাংশ শেয়ার কিনে নেয়। ইমাজিনিয়া ফার্মটিই হলো মিডিয়াপ্রোর মালিক। এর এক দিন আগে মিডিয়াপ্রো স্প্যানিশ পুলিশের সমালোচনা করে একটি বিবৃতি দেয়। কেননা, পুলিশ তাদের এক তদন্তে গণভোটের আয়োজকদের একজন হিসেবে রাউর্সের নাম উল্লেখ করে।

সন্দেহ নেই, নতুন ক্রেতারা উত্তেজনা তৈরির চেয়ে মিডিয়াপ্রোর বাণিজ্যিক দিক নিয়েই বেশি ভাববে। কোম্পানিটি ২০১৭ সালে ১ দশমিক ৬৫ বিলিয়ন ইউরো আয় করেছে। যার মধ্যে তাদের মুনাফা ১২৮ মিলিয়ন ইউরো। ২০১৬ সালের তুলনায় যা ১২ শতাংশ বেশি। ফুটবলের স্বত্ব বিক্রি করেই প্রতিষ্ঠানটির সিংহভাগ আয় হয়। মিডিয়াপ্রোর মালিকানা বদলের দুই সপ্তাহ আগে তিন সিজনের জন্য বার্ষিক ১ দশমিক ১ বিলিয়ন ইউরো চুক্তিতে ইতালির শীর্ষ ফুটবল লিগ সিরি ‘আ’র স্বত্ব কিনে নিয়েছে মিডিয়াপ্রো।

২০১৯ পর্যন্ত লা লিগার বেশির ভাগ স্বত্বও রয়েছে মিডিয়াপ্রোর। একটি ফুটবল জাদুঘরেরও পরিকল্পনা করছে প্রতিষ্ঠানটি।

এটি লিওনেল মেসিকে উৎসর্গ করা একটি থিম পার্কে বিনিয়োগ করছে, যেটি চীনা শহর নানজিংয়ে ২০২০ সালে উদ্বোধন করা হবে। এটি টেলিভিশন সিরিজ এবং ফিচার ফিল্মও প্রচার করে। ‘ভিকি ক্রিস্টিয়ানা বার্সেলোনা’সহ ফিচার ফিল্মগুলোর কয়েকটি পরিচালনা করেছেন উডি এলেন।

রাউর্স ও বেনেট প্রত্যেকে মিডিয়াপ্রোর ১২ শতাংশ শেয়ারের মালিকানা ধরে রাখবে এবং স্বপদে বহাল থাকবে।

ফেব্রুয়ারিতে ব্রিটিশ সম্প্রচারকারী স্কাই ও বিটি স্পোর্টস ২০১৯ সাল থেকে শুরু হওয়া তিন সিজনের ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ১৬০টি ফুটবল ম্যাচের স্বত্ব মাত্র ৪ দশমিক ৫ বিলিয়ন পাউন্ডে কিনে নেয়। গত তিন সিজনের মূল্য যেখানে ছিল ৫ দশমিক ১ বিলিয়ন পাউন্ড। ইতালিতে মিডিয়াপ্রো ন্যূনতম দর হাঁকিয়ে সিরি ‘আ’র স্বত্ব কিনে নেয়। যদিও এনডারস অ্যানালাইসিস প্রতিষ্ঠানের বিশ্লেষক ফ্রান্সিস গোদরাদ এখনো মনে করেন, সিরি ‘আ’ থেকে মিডিয়াপ্রো লাভ করতে পারবে না।

মিডিয়াপ্রোর দুর্বলতা হলো, এটি তৃতীয় পক্ষ হিসেবে কাজ করে। এদের নিজেদের কোনো গ্রাহক নেই। তার পরিবর্তে এরা এমন সব প্রতিষ্ঠানের ওপর নির্ভর করে, যাদের কাছে মিডিয়াপ্রো স্বত্ব বিক্রি করে। মিডিয়াপ্রো আমাজন অথবা নেটফ্লিক্সের কাছে স্বত্ব বিক্রি করতে পারে, কিন্তু বড় প্রতিষ্ঠানগুলো সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ চায়। মিডিয়াপ্রোর বর্তমান গ্রাহকেরা ফুটবলের ব্যাপারে আগ্রহী নয় বলে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। টেলিফোনিকা (স্প্যানিশ টেলিকম অপারেটর)জানিয়েছে, এটি অনলাইনে ফুটবলের সম্প্রচার চালু রাখবে কি না, তা নিয়ে পর্যালোচনা চালাচ্ছে।

বেনেট এটিকে বর্ণনা করেছেন চুক্তি নবায়নের আগে দরদাম করার একটি পদ্ধতি হিসেবে। তিনি বলছেন, স্পানিশ জনগণ এখনো ফুটবলের সরাসরি সম্প্রচার দেখতে চায় এবং যারা এটা দেখাবে, স্প্যানিয়ার্ডরা তাদের মাথায় করে রাখতে রাজি আছে। বেনেটের চায়নিজ ঊর্ধ্বতনেরা আশা করছে, রাজনৈতিক ডামাডোল তাদের আসল ব্যবসা ব্যাহত করবে না।

দ্য ইনডিপেনডেন্ট অবলম্বনে মেহেদি রাসেল

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0