বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

এই ঘটনায় মাদ্রিদের একটি আদালত তাঁদের আবেদন মঞ্জুর করেন। আদালত আদেশ দিয়েছেন, পোষা কুকুর পান্ডার দেখভালের দায়িত্ব সদ্যবিচ্ছেদ হওয়া স্বামী–স্ত্রী দুজনকে যৌথভাবে পালন করতে হবে। এখন থেকে প্রতি মাসে সমান সংখ্যক দিন কুকুরটি দুজনের কাছে থাকবে।

স্পেনে সম্প্রতি প্রণয়ন করা একটি আইনের খসড়ায় জীবজন্তুর আইনগত জীবন্ত সত্ত্বার স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে দেশটিতে জীবজন্তুর আইনগত অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। এই আইনের আওতায় বিচ্ছেদ হওয়ার পর ওই দম্পতি কুকুরের দেখভালের দায়িত্ব চেয়ে আদালতে আবেদন করতে পেরেছেন।

স্থানীয় একটি পশুদের আইনী সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের হয়ে ১৯৮৭ সালে জারি করা ইউরোপিয়ান কনভেনশন ফর দি প্রোটেকশন অব পেট এনিমেলস–এর আওতায় পান্ডার মালিকানা নিয়ে আদালতে লড়েছেন লোলা গার্ক। স্পেন এই সনদটি ২০১৭ সালে অনুমোদন দিয়েছে। লোলা গার্ক বলেন, এটা একটি যুগান্তকারী আদেশ। এর মধ্য দিয়ে আমার গ্রাহক পোষা ওই কুকুরটির শুধু সহ–মালিক হয়েছেন এমনটা নয়, বরং তিনি কুকুরটির দেখভালের অর্ধেক দায়িত্বও পেয়েছেন।

শুধু স্পেনে নয়, এর আগে যুক্তরাজ্য, অস্ট্রেলিয়া ও ফ্রান্সে পোষা কুকুরের মালিকানা নির্ধারণ, দেখভালের দায়িত্ব বন্টন এবং পশুদের অধিকার নিশ্চিতের জন্য আইন করা হয়েছে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন