বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গতকাল ভাগ্যনির্ধারণী চূড়ান্ত পর্বের (রানঅফ) ভোটে উগ্র ডানপন্থী নেতা হিসেবে পরিচিত মারিন লা পেনকে হারিয়ে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে পাঁচ বছরের জন্য ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছেন এমানুয়েল মাখোঁ। এর মধ্য দিয়ে ফ্রান্সের রাজনীতিতে বড় ধরনের একটি দুঃখজনক ঘটনা এড়ানো গেছে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

তবে ডানপন্থী ও মধ্যপন্থীদের নিয়ে ফ্রান্সের মানুষের মধ্যে বিভাজন আবার স্পষ্ট হয়েছে। মাখোঁ সহজ জয় পেলেও গতবারের চেয়ে এবার ভোটের ব্যবধান আরও কমেছে। এদিকে ১৯৬৯ সালের পর এ বছর ভোটার উপস্থিতি ছিল সবচেয়ে কম। কোনো কারণে ভোটারদের একটা অংশ মাখোঁ অথবা লা পেন, কাউকেই পছন্দ করেননি।

এ মাসের শুরুতে প্রথম দফার ভোট ও গতকাল দুই প্রার্থীর মধ্যে হওয়া রানঅফ ভোটের মধ্যে ফ্রান্সে শিক্ষার্থীরা প্যারিসের সরবন এলাকা ছাড়া অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ করেছেন। বিক্ষোভকারী শিক্ষার্থীরা প্রেসিডেন্ট হিসেবে এমানুয়েল মাখোঁ কিংবা মারিন লা পেনের কাউকে যে তাঁদের পছন্দ নয়, সে বিষয় প্রকাশ করেন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন