বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কোভিডের কারণে যাত্রী কম আর পাইলট অসুস্থ হয়ে পড়ায় এমনটা হয়েছে। এখনো বিশ্বজুড়ে বিমান চলাচল স্বাভাবিক হয়নি। আগামী বছরের মধ্য জানুয়ারি থেকে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত যাত্রী কম থাকায় বাতিল করা হয়েছে ৩৩ হাজারের বেশি ফ্লাইট। জার্মানি, সুইজারল্যান্ড, অস্ট্রিয়া ও বেলজিয়ামে যাত্রী কমে গেছে। জানুয়ারি, ফেব্রুয়ারিতে যাত্রী নেই। লুফথানসার প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) কার্সটেন শোফার জানান, জানুয়ারির মাঝামাঝি থেকে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত সময়ে যাত্রী নেই, চাহিদা একেবারে কমে গেছে। তাই তারা বহু ফ্লাইট বাতিল করতে বাধ্য হয়েছেন।

জার্মান গণমাধ্যম ডয়চে ভেলের খবরে বলা হয়েছে, সিইও কার্সটেন শোফার জানান, মহামারির আগে ২০১৯ সালে যত বিমান চালাত এ সংস্থা, এখন তার ৬০ শতাংশ কম চালাতে হচ্ছে। যাত্রী কমেছে ৫০ শতাংশ। আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ওঠানামা চালু রাখতে গেলে তাদের এ ফ্লাইট চালাতেই হবে—এ নিয়মের কারণে চাহিদার বাইরেও বিমান চালাচ্ছে সংস্থাটি।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন