বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

ফ্রস্ট জানান, ব্রেক্সিট নিরাপদে সম্পন্ন হওয়ার ব্যাপারে তিনি আত্মবিশ্বাসী ছিলেন। কিন্তু সরকারের দিকনির্দেশনা নিয়ে তাঁর মধ্যে উদ্বেগ কাজ করেছিল।

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর ও বাসভবন ডাউনিং স্ট্রিট থেকে বরিসকে দেওয়া একটি চিঠি গতকাল শনিবার প্রকাশ করা হয়েছে। চিঠিতে বরিসকে ফ্রস্ট জানান, সরকারের বর্তমান দিকনির্দেশনা নিয়ে তাঁর (ফ্রস্ট) উদ্বেগের কথা সম্পর্কে তিনি (বরিস) অবগত আছেন।

ফ্রস্টের পদত্যাগের খবর আজ রোববার প্রথম প্রকাশ করে ‘দ্য মেইল’। এতে বলা হয়, করোনা–সংক্রান্ত বরিসের কঠোর বিধিনিষেধের জেরে ফ্রস্ট পদত্যাগ করেন। এ ছাড়া তাঁর পদত্যাগের পেছনে সরকারের কর বৃদ্ধি ও পরিবেশগত নীতির ব্যয় নিয়ে বড় ধরনের অসন্তোষের বিষয়টি কাজ করেছে।

ফ্রস্টের পদত্যাগপত্র হাতে পেয়ে ব্যথিত হওয়ার কথা জানান বরিস জনসন।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন