গত ১৫ মার্চ কাউন্সিলের এক বৈঠকে অ্যালেক্সি গোরিনভ ইউক্রেন যুদ্ধের সমালোচনা করে বলেছেন, ইউক্রেনের বিরুদ্ধে আগ্রাসন চালাচ্ছে রাশিয়া। শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার বিষয় নিয়ে ওই বৈঠকের একটি ভিডিও পরে ইউটিউবে প্রকাশিত হয়। ভিডিওতে অ্যালেক্সি গোরিনভ বলেন, ‘শিশু দিবসে আয়োজিত শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা নিয়ে আমরা কী কথা বলতে পারি, যখন আমাদের বাচ্চারা প্রতিদিন মারা যাচ্ছে।’

অ্যালেক্সি গোরিনভকে ফৌজদারি দণ্ডবিধির ধারা ২০৭–এর ৩–এর অধীন গ্রেপ্তার করা হয়। আইনটি গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে রুশ হামলা শুরুর পরপরই পাস হয়েছিল। আইনটি ‘রাশিয়ার সেনাবাহিনী সম্পর্কে ইচ্ছাকৃতভাবে মিথ্যা তথ্য প্রচার করা’ বেআইনি করার উদ্দেশ্যে পাস করা হয়। আইনে ওই সব মিথ্যা তথ্যকে সরকারি প্রতিবেদন থেকে ভিন্ন তথ্য হিসেবে সংজ্ঞায়িত করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের অ্যাপ টেলিগ্রামে অ্যালেক্সি গোরিনভের সমর্থকেরা কাউন্সিলরের একটি ছবি পোস্ট করেছেন। এতে দেখা যায়, গোরিনভ হাতকড়া পরিহিত অবস্থায় কাচ দিয়ে ঘেরা কাঠগড়ায় দাঁড়িয়ে আছেন। ছবিতে দেখা যায়, কাঠগড়ার কাচের দেয়ালে একটি একটি প্ল্যাকার্ড ধরে আছেন গোরিনভ। এতে লেখা, ‘আপনার কি এখনো এই যুদ্ধের প্রয়োজন আছে?’

গোরিনভকে উদ্ধৃত করে টেলিগ্রামের ওই পোস্টে লেখা হয়, ‘তারা আমার বসন্ত কেড়ে নিয়েছে, তারা আমার গ্রীষ্ম কেড়ে নিয়েছে। এখন তারা আমার জীবনের আরও সাতটি বছর কেড়ে নিয়েছে।’

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন