বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কাতারভিত্তিক গণমাধ্যম আল-জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়, জামাল খাসোগি হত্যার বিচার শুরু হয় গত বছর। গত মঙ্গলবার ওই মামলায় পঞ্চম দিনের মতো শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। আদালত ভাইস কনসাল, একজন অ্যাটাশেসহ ২৬ সৌদি নাগরিকের বিচার করছেন। ২০১৮ সালের অক্টোবরে ইস্তাম্বুলে সৌদি দূতাবাসে সাংবাদিক খাসোগি হত্যায় তাঁদের জড়িত থাকার অভিযোগ রয়েছে।

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সমালোচক হিসেবে পরিচিত খাসোগি তাঁর বিয়ের প্রয়োজনীয় নথিপত্র পেতে ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর ইস্তাম্বুলে সৌদি দূতাবাসে যান। এ সময় তাঁকে হত্যা করে দেহ টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়। এ ঘটনায় আদালতে দূতাবাসে কর্মরত তুরস্কের কর্মকর্তারা সাক্ষ্য দিয়েছেন।

ওই ঘটনায় তুর্কি আইনজীবীরা পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যার দায়ে ১৮ অভিযুক্তের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও তথ্যপ্রমাণ নষ্ট করার জন্য চারজনের পাঁচ বছরের কারাদণ্ড চাইছেন।

এই হত্যাকাণ্ডে সৌদি যুবরাজ সম্মতি দিয়েছিলেন—এমন প্রমাণ হিসেবে মার্কিন গোয়েন্দা প্রতিবেদন যুক্ত করতে খাসোগির বাগ্‌দত্তা হ্যাটিস চেঙ্গিজের আইনজীবী দলের একটি অনুরোধ দুবার প্রত্যাখ্যান করেছেন আদালত।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন