default-image

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) দেশগুলো থেকে যাওয়া অভিবাসীদের অবাধ চলাচল নিয়ন্ত্রণে যে প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছিল তা গণভোটে খারিজ হয়ে গেছে। দেশটির ডানপন্থী রাজনৈতিক দল সুইস পিপলস পার্টি (এসভিপি) এ প্রস্তাব উত্থাপন করেছিল। এরপর গতকাল রোববার গণভোট অনুষ্ঠিত হয়। গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে, প্রস্তাবের বিরুদ্ধে ভোট পড়েছে ৬১ দশমিক ৭ শতাংশ।

সুইজারল্যান্ডে প্রত্যক্ষ গণতন্ত্র ব্যবস্থা বিদ্যমান। ফলে বিভিন্ন ইস্যুতে দেশটির নাগরিকেরা ভোট দিয়ে থাকে। নতুন এই প্রস্তাবের ওপর একই ধরনের ভোটের আয়োজন করা হয়েছিল। প্রস্তাবটির বিরুদ্ধে ভোট দিয়েছে সরকার, পার্লামেন্ট, ইউনিয়ন ও বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠন এবং অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সদস্যরা।


ইইউর সদস্য দেশ নয় সুইজারল্যান্ড। কিন্তু দেশটির সঙ্গে ইইউর মুক্ত বাণিজ্য চুক্তিসহ বিভিন্ন ধরনের চুক্তি রয়েছে। এ ছাড়া ইইউর বিভিন্ন ধরনের আইনও দেশটিতে কার্যকর। ফলে ইইউর বিভিন্ন দেশের নাগরিকেরা সুইজারল্যান্ডে এবং সুইস নাগরিকেরা ইইউভুক্ত অন্যান্য দেশে গিয়ে কাজ করতে পারেন। নতুন প্রস্তাবে এই অবাধ চলাচল নিয়ন্ত্রণের আহ্বান জানানো হয়েছিল।

বিজ্ঞাপন

এসভিপির এমন উদ্যোগ নেওয়ার পেছনে একটি বড় কারণ হলো ২০১৪ সালের গণভোটে তাদের সাফল্য। সুইজারল্যান্ডে চাকরির বাজারে দেশটির স্থায়ী বাসিন্দাদের প্রাধান্য দিতে একটি গণভোট হয়েছিল ওই বছর। ওই ভোটে জিতেছিল দলটির একটি প্রস্তাব। সুইজারল্যান্ডে চাকরির বাজারে দেশটির স্থায়ী বাসিন্দাদের প্রাধান্য দেওয়ার কথা বলা হয়েছিল সেই প্রস্তাবে। ওই গণভোটের ফলাফলের ভিত্তিতে পরে আইনও পাস হয়। কিন্তু আইনটিকে এখন যথেষ্ট দুর্বল মনে করছে এসভিপি। ফলে এবার অভিবাসীদের বিদায় করার উদ্যোগ নিয়েছিল দলটি।

মন্তব্য পড়ুন 0