বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

গ্লাসগোয় গত ৩১ অক্টোবর থেকে কপ-২৬ সম্মেলন শুরু হয়েছে, চলবে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত। বিশ্বের বিভিন্ন দেশ, সংস্থা, সংগঠনের প্রতিনিধিরা এ সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন।
গতকাল ছিল সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন। এদিন সম্মেলনে যোগ দিতে যান ইসরায়েলি মন্ত্রী কারিন। কিন্তু তিনি অভিযোগ করেন, হুইলচেয়ার ব্যবহারকারীদের মূল সম্মেলনস্থলে যাওয়ার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা রাখা হয়নি। শুধু পায়ে হেঁটে কিংবা সাঁটল পরিবহনে চেপে সম্মেলনস্থলে যাওয়ার ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। সে কারণে তিনি মূল সম্মেলনস্থলে যেতে পারেননি।

টুইটারে কারিন লিখেছেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আসা জ্বালানিমন্ত্রীদের সঙ্গে দেখা করার পাশাপাশি জলবায়ু সংকটের বিরুদ্ধে সম্মিলিত প্রচেষ্টাকে এগিয়ে নিতে তিনি এ সম্মেলনে এসেছেন। তবে দুঃখজনক বিষয় হলো, জাতিসংঘ প্রতিবন্ধীদের জন্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতের পক্ষে কথা বললেও তারা নিজেদের অনুষ্ঠানে সে ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করার বিষয়টি মাথায় রাখেনি।

ইসরায়েলি এই মন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন, আজ (মঙ্গলবার) নাগাদ সমস্যার সমাধান পাওয়া যাবে।

কারিনের কার্যালয় থেকে বলা হয়েছে, গ্লাসগোতে সম্মেলনস্থলে যাওয়ার জন্য দুই ঘণ্টা অপেক্ষা করেছিলেন এই মন্ত্রী। পরে তিনি তাঁর হোটেলে ফিরে যেতে বাধ্য হন।

কপ-২৬ সম্মেলনের আয়োজকদের উদ্দেশ্যে ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, সবার আগে মানবজাতির সুরক্ষা। প্রতিবন্ধীদের জন্য সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত না করতে পারলে ভবিষ্যৎ, জলবায়ু ও মানুষকে নিয়ে ভাবা অসম্ভব।

ইসরায়েলে নিযুক্ত যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত নিল উইগান এ ঘটনায় ক্ষমা চেয়েছেন। এক টুইটে তিনি লিখেছেন, কারিন সম্মেলনে যোগ দিতে পারেননি শুনে তিনি বিব্রত বোধ করছেন। তিনি মন্ত্রীর কাছে আন্তরিকভাবে ক্ষমা চেয়েছেন। তাঁরা এমন একটি কপ সম্মেলন চান, যা সবার জন্য উপযোগী ও অভ্যর্থনামূলক হবে।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন