default-image

ইউরোপীয় বিমান নির্মাণ কোম্পানি এয়ারবাসের কাছ থেকে প্রায় ৩০০ উড়োজাহাজ (এয়ারবাস) ক্রয় করছে চীন। সেই লক্ষ্যে ৩ হাজার কোটি (৩০ বিলিয়ন) ইউরো মূল্যমানের চুক্তি সই করেছেন ফ্রান্স সফররত চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং এবং ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁ

চুক্তি অনুযায়ী, এয়ারবাস কোম্পানির কাছ থেকে ২৯০টি এ-৩২০ মডেলের এবং ৯টি এ-৩৫০ মডেলের উড়োজাহাজ ক্রয় করবে চীন।

ফরাসি সরকারের একজন প্রতিনিধি জানিয়েছেন, এয়ারবাস বিক্রয়সংক্রান্ত চুক্তিটির মূল্যমান ৩০ বিলিয়ন ইউরো। এই চুক্তি ছাড়াও দুই দেশের মধ্যে আরও ১৫টি বাণিজ্য চুক্তি করার কথা রয়েছে। ২০১৮ সালে ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁর চীন সফরের সময় চীনা সরকার ১৮৪টি এয়ারবাস ক্রয়ের বিষয়ে পরিকল্পনার কথা জানিয়েছিল। সেই পরিকল্পনার পরিপ্রেক্ষিতেই এবার প্রায় ৩০০ উড়োজাহাজ কিনতে যাচ্ছে চীন।

এই চুক্তিকে নিজেদের বড় সাফল্য বলে মনে করছে বিমান নির্মাণ কোম্পানি এয়ারবাস। যুক্তরাষ্ট্রের বোয়িং কোম্পানির দুটি উড়োজাহাজ সম্প্রতি বিধ্বস্ত হওয়ার পর অনেকেই এয়ারবাস কোম্পানির উড়োজাহাজ কেনার আগ্রহ দেখাচ্ছে।

এয়ারবাসের সদর দপ্তর ফ্রান্সের তুলেসে শহরে হলেও জার্মানি, স্পেন, যুক্তরাজ্য এর অংশীদার। এসব দেশে এয়ারবাস কোম্পানির উড়োজাহাজের সরঞ্জাম তৈরি হয়ে থাকে। ইউরোপের বাইরে চীনের তিয়ানজিনে কিছু সরঞ্জাম তৈরি ও উড়োজাহাজ প্রতিস্থাপন হয়ে থাকে। কোম্পানিটি যাত্রীবাহী ছাড়াও সামরিক উড়োজাহাজ নির্মাণ করে।

ইউরোপের সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাণিজ্যিক এবং অর্থনৈতিক টানাপোড়েন শুরু হওয়ার পর থেকে চীন ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের দেশগুলোর মধ্যে অর্থনৈতিক সম্পর্কের উন্নয়ন ঘটছে। চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং ইতালি সফরের পর ফ্রান্স সফরে রয়েছেন।

মঙ্গলবার চীনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে প্যারিসে ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল মাখোঁ, জার্মানির চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও ইউরোপীয় কমিশনের সভাপতি জোঁ ক্লঁদে ইউঙ্কারের মধ্যে আলোচনা হওয়ার কথা রয়েছে। উল্লেখ্য, আগামী ৯ এপ্রিল ব্রাসেলসে ইইউ ও চীনের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়ে শীর্ষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন
ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন