বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ার কারণে ওই পর্বত এলাকায় এয়ার অ্যাম্বুলেন্স হেলিকপ্টার অবতরণ করতে পারেনি। পরে ওই অভিযাত্রীকে স্ট্রেচারে করে পর্বত থেকে নামিয়ে সড়কপথে অপেক্ষারত অ্যাম্বুলেন্স পর্যন্ত নিয়ে যান উদ্ধারকারীরা।

জরুরি সেবা সমন্বয়কারী কর্মকর্তা গ্যারি ইভান্স বলেন, ওই ব্যক্তি যত সময় গুহায় ছিলেন এবং যত সময় স্ট্রেচারে ছিলেন, সেটা বিবেচনা করলে তাঁর শারীরিক অবস্থা অনেকখানি ভালো আছে।

প্রায় আড়াই শ মানুষ উদ্ধার অভিযানে যোগ দিয়েছিলেন। যাঁরা অংশ নিয়েছিলেন, তাঁরা আন্তর্জাতিকভাবে স্বনামধন্য। অনেকে নর্থ ইয়র্কশায়ারের মতো দূরবর্তী এলাকা থেকেও এসেছেন। কেউ কেউ আবার ২০১৮ সালে থাই গুহায় আটকে পড়াদের উদ্ধার অভিযানেও অংশ নিয়েছিলেন।

ওয়েলসের কোনো গুহায় পরিচালিত সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের অভিযান ছিল এটি। সময় লেগেছে ৫৩ ঘণ্টার বেশি। এর আগের দীর্ঘতম অভিযানটিতে সময় লেগেছিল ৪১ ঘণ্টা।

ওগোফ ফিন্নন ডি গুহাটি প্রায় ৯০২ ফুট গভীর। ওয়েলসে অবস্থিত দ্বিতীয় বৃহত্তম এবং যুক্তরাজ্যের অন্যতম গভীর গুহার একটি এটি। ন্যাচারাল রিসোর্সেস ওয়েলসের তথ্য অনুযায়ী, ১৯৪৬ সালে গুহাগুলো আবিষ্কার করেছিল সাউথ ওয়েলস কেইভিং ক্লাব। এখানে কয়েকটি ভূগর্ভস্থ জলস্রোত ও জলপ্রপাত রয়েছে। কেইভিং ক্লাবের অনুমতি ছাড়া সেখানে গুহা অভিযাত্রীরা যেতে পারেন না।

কেইভিং ক্লাবের ওয়েবসাইটে ওগোফ ফিন্নন ডি গুহা সম্পর্কে বলা হয়, গুহাটিতে অনেকগুলো পথ রয়েছে। ওয়েবসাইটে দেওয়া নির্দেশিকায় সতর্ক করে বলা হয়েছে, গুহার মূল অংশসহ আরও কিছু এলাকা বন্যাপ্রবণ। এ গুহার ভ্রমণপথ দীর্ঘ, ঠান্ডা ও আর্দ্র। এ ব্যাপারে সবাইকে প্রস্তুতি নিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে নির্দেশিকায়।

ইউরোপ থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন