বিজ্ঞাপন

২৭ এপ্রিল ধারণ করা ২০ সেকেন্ডের ভিডিওটিতে এ চিকিৎসক বলেন, ‘খুব খারাপ অবস্থার মধ্যে আমি এই ভিডিওটি করছি। যাঁরা আমাকে চেনেন তাঁদের ও সবার উদ্দেশে বলছি, অনুগ্রহ করে কেউ করোনাভাইরাসকে হালকা করে দেখবেন না। খুব খারাপ এটা, খুব খারাপ উপসর্গ। আমার কথা বলতে কষ্ট হচ্ছে। কিন্তু এই বার্তা আমি সবার মধ্যে ছড়িয়ে দিতে চাই। অনুগ্রহ করে সবাই মাস্ক পরুন। যেখানেই আপনি যান, যাঁর সঙ্গেই দেখা করুন, ঘরে কিংবা বাইরে মাস্ক পরুন। আপনার প্রিয় মানুষের সুরক্ষার জন্য।’

রভিশ চাওলা বলেন, স্ত্রীর শেষ ইচ্ছা মানুষের কাছে তিনি পৌঁছে দিয়েছেন। কয়েক হাজার মানুষ তাঁর প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। এনডিটিভিকে রভিশ বলেন, ‘কোনো কিছু থেকে মানুষকে সতর্ক করা তার (ডিম্পল) জন্মগত অভ্যাস ছিল। তেমনি করোনাভাইরাস নিয়ে পরিবার ও বন্ধুদের সতর্ক করেছে সে। তার অকালমৃত্যুতে এ ভিডিও আমাকেই পোস্ট করতে হলো।’

রভিশ চাওলা বলেন, ‘সবার উচিত মাস্ক পরা। শুধু নিজের জন্য না, বয়স্ক ও অন্তঃসত্ত্বা নারীদের জন্যও। এটিই ছিল আমার স্ত্রীর শেষ বার্তা। আমি চাই মানুষ সেটা জানুক।’
ভারতে এখন পর্যন্ত করোনায় ৮৬৪ জন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে। ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের (আইএমএ) তথ্য অনুযায়ী, ৭ মে পর্যন্ত করোনায় ৮৬৪ জন চিকিৎসক মারা গেছেন। এর মধ্যে গত বছর ৭৩৬ জন মারা গেছেন। চলতি বছর এপ্রিল পর্যন্ত মারা গেছেন আরও ১২৮ জন।

এদিকে ভারতে গতকাল বুধবার করোনাভাইরাসে নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৩ লাখ ৬২ হাজারের বেশি মানুষ। আর মারা গেছেন ৪ হাজার ১২০ জন।

করোনাভাইরাসের সার্বক্ষণিক তথ্য সরবরাহকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্য অনুসারে, ভারতে এ পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৩৭ লাখের বেশি মানুষ। মারা গেছেন ২ লাখ ৫৮ হাজারের বেশি মানুষ। সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৯৭ লাখের বেশি মানুষ। ভারতের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটিতে মোট আক্রান্ত মানুষের মধ্যে এখনো ১৫ শতাংশের বেশি অসুস্থ। তবে করোনায় সংক্রমিত সবচেয়ে বেশি রোগী রয়েছে কর্ণাটক, মহারাষ্ট্র, কেরালা ও তামিলনাড়ু রাজ্যে। এই রাজ্যগুলোয় আক্রান্ত ব্যক্তিদের মধ্যে এখনো ৮২ শতাংশ অসুস্থ।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন