বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

২০১৯ সালের সর্বশেষ লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ৪২টি আসনের মধ্যে ৪২টিতেই জয়ের লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে প্রচারে নেমেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যব্যাপী স্লোগান তুলেছিলেন, ‘বেয়াল্লিশে বেয়াল্লিশ’। অর্থাৎ রাজ্যের ৪২টি লোকসভা আসনেই জিততে হবে তৃণমূলকে। তবে ফলাফলে দেখা যায়, মমতার দল ৪২টি নয়, ২২টি আসন পেয়েছে। বিজেপি ১৮টি এবং কংগ্রেস ২টি। বাম দলের ভাগ্যে জোটেনি একটি আসনও।

২০২৪ সালের এপ্রিল-মে মাসে অনুষ্ঠিত হবে পরের লোকসভা নির্বাচন। আর সে নির্বাচনে মমতার মতো করে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির জন্য লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিয়েছেন সুকান্ত মজুমদার। গতকাল শনিবার আলীপুরের জাতীয় গ্রন্থাগারের মিলনায়তনে বিজেপির বিজয় সম্মিলনীতে যোগ দিয়ে তিনি বলেন, ৪২টি আসনের মধ্যে বিজেপিকে জিততে হবে ২৫টি আসন। তবে তার আগে রাজ্যের পৌরসভা নির্বাচনে জিতে আনতে হবে বিজেপির আসন। পৌরসভা ও পৌর করপোরেশনের নির্বাচনে বিজেপি ভালো ফল করতে না পারলে তাদের লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে পারবে না।

এ বছরের শেষে বা আগামী বছরের প্রথম দিকে পশ্চিমবঙ্গের পৌর করপোরেশনসহ ১১০টি পৌরসভায় নির্বাচন হওয়ার কথা। সেই দিকে লক্ষ্য রেখে বিজেপি শুরুও করেছে নির্বাচনী প্রচার।

তবে তৃণমূল নেতা ও দলের অন্যতম সাধারণ সম্পাদক কুণাল ঘোষ দাবি করেছেন, বিধানসভা নির্বাচনে বাম কংগ্রেস জোট শূন্য হয়ে গেছে। আগামী লোকসভার ভোটে বিজেপিও শূন্য হবে। কোন ম্যাজিকে হবে, সেটা বিজেপি বুঝতে পারবে ২০২৪ সালের নির্বাচনের ফলাফলে। তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ বলেছেন, স্বপ্ন দেখা ভালো বিজেপির, তবে দিবাস্বপ্ন দেখে কোনো লাভ নেই।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন