আমিরাতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননা পেলেন মোদি

বিজ্ঞাপন
default-image

আরব বিশ্বের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাতের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননায় ভূষিত হয়েছেন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক উন্নয়নে ভূমিকা রাখায় আজ শনিবার মোদিকে ‘অর্ডার অব জায়েদ’ সম্মাননা দেয় আমিরাত।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিষ্ঠাতা শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের নামে নিজেদের সর্বোচ্চ বেসামরিক সম্মাননার নামকরণ করেছে আমিরাত। শেখ জায়েদের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মোদিকে এই সম্মাননা দেওয়া হলো। এর আগে এ বছরের এপ্রিলে মোদিকে এই সম্মাননা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিল আমিরাত। ঘোষণা দেওয়ার চার মাসের মাথায় আমিরাত সফরে থাকা মোদিকে এই সম্মাননা দিল মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এর আগে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন, যুক্তরাজ্যের রানি দ্বিতীয় এলিজাবেথ ও চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিংয়ের মতো বিশ্বনেতাদেরও এই সম্মাননা দিয়েছিল আমিরাত।

মোদির আমিরাত সফরের আগে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক আনুষ্ঠানিক বিবৃতিতে মোদির সম্মাননা গ্রহণের বিষয়টি নিশ্চিত করে। বিবৃতিতে বলা হয়, সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রতিষ্ঠাতা শেখ জায়েদ বিন সুলতান আল নাহিয়ানের নামে দেওয়া এই সম্মাননা ভারতের কাছে বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ শেখ জায়েদের জন্মশতবার্ষিকীতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে এই সম্মাননা দেওয়া হচ্ছে।

default-image

এর আগে গত এপ্রিলে আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স মোহামেদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান এক টুইট বার্তায় বলেছিলেন, ‘ভারতের সঙ্গে আমাদের ঐতিহাসিক কূটনৈতিক সম্পর্ক আছে। আমার বন্ধু নরেন্দ্র মোদির সময়ে এ সম্পর্ক আরও দৃঢ় হয়েছে। দুই দেশের সম্পর্কে তিনি নতুন মাত্রা যোগ করেছেন।’

সংযুক্ত আরব আমিরাত ভারতের তৃতীয় বৃহত্তম বাণিজ্য সঙ্গী। আমিরাতের সঙ্গে বছরে প্রায় ৬০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের বাণিজ্য হয় ভারতের। কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তানের সঙ্গে ভারতের দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের চরম অবনতির মধ্যেই মোদিকে এই সম্মাননা দিয়ে ভারতের প্রতি নিজেদের সমর্থনকেই যেন আরও একবার জানান দিল আমিরাত।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন