বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

আগের দিন মঙ্গলবার নিয়ম ভঙ্গ করে লেজার রশ্মি ব্যবহারের কারণে মণ্ডপের আলো নিভিয়ে দেওয়া হয়েছিল। কলকাতা বিমানবন্দর থেকে শ্রীভূমির তৈরি বুর্জ খলিফা পূজামণ্ডপের দূরত্ব মাত্র সাড়ে আট কিলোমিটার। কর্তৃপক্ষের নির্দেশনায় আগেই বলা ছিল, বিমানবন্দর এলাকায় লেজার রশ্মি ব্যবহার ও ফানুস ওড়ানো নিষিদ্ধ। তবে তা অমান্য করেই বুর্জ খলিফার আদলে তৈরি পূজামণ্ডপকে লেজার রশ্মিতে বর্ণিল করে গড়ে তোলা হয়। গত সোমবার রাতে কলকাতা বিমানবন্দরের এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের (এটিসি) কাছে আলাদা করে তিন এয়ারলাইনসের পাইলটরা অভিযোগ করেন, লেজার রশ্মির বিকিরণে তাঁদের বিমান চালাতে অসুবিধা হচ্ছে। এরপরই এ অভিযোগ চলে যায় ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের কাছে। শেষ পর্যন্ত তাদের নির্দেশে বন্ধ করে দেওয়া হয় বুর্জ খলিফার লেজার রশ্মি।

কলকাতায় ভিড়ের চাপে পূজামণ্ডপ বন্ধ করে দেওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম নয়। এর আগে ২০১৫ সালের অক্টোবরে দক্ষিণ কলকাতার দেশপ্রিয় পার্কের সর্বজনীন দুর্গাপূজায় নির্মিত হয়েছিল বিশ্বের সর্বোচ্চ দুর্গাপ্রতিমা। এই দুর্গাপ্রতিমা উচ্চতায় ছিল ৮৮ ফুট। তৈরি করা হয়েছিল সিমেন্ট ও ফাইবার গ্লাস দিয়ে। সে বছর ২০ অক্টোবর ছিল সপ্তমীর দিন। কিন্তু পূজা শুরুর এক সপ্তাহ আগে থেকে এই বিশাল দুর্গাপ্রতিমা দেখতে প্রচণ্ড ভিড় জমে যায় ওই মণ্ডপে। এমন অবস্থায় পূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরুর দুই দিন আগেই মণ্ডপ বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয় পুলিশ।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন