বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

বিজ্ঞাপন ছাপার পর তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সমালোচনা করে বলেন, বাংলায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে যে উন্নয়ন হয়েছে, সেই উন্নয়নের ছবি চুরি করে যোগী নিজের রাজ্যের উন্নয়নের কথা বলেছেন। এ ঘটনায় বিজেপির সবচেয়ে শক্তিশালী রাজ্য উত্তর প্রদেশে সরকারের ডাবল ইঞ্জিন মডেল মুখ থুবড়ে পড়েছে।

এদিকে বিজ্ঞাপনটির ছবি নিয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছে ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। এটিকে ভুল হিসেবে উল্লেখ করে তারা বলেছে, ‘এটি আমাদের বিপণন বিভাগের ভুল। এই ভুলের জন্য আমরা অত্যন্ত দুঃখিত।’

এ প্রসঙ্গে বিজেপির রাজ্য মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেছেন, বিজ্ঞাপন দিয়েছে এজেন্সি। সংবাদপত্রটিও ভুল স্বীকার করেছে। ভুলকে চুরি করা বা নকল বলা—এটি কী ধরনের সংস্কৃতি? উত্তর প্রদেশে ভোটের জন্য এ ধরনের ছবির প্রয়োজন নেই।

বিজেপি এমন কথা বললেও তৃণমূলের সুরে সুর মিলিয়েছেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী। যোগী আদিত্যনাথের দিকে ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, তাঁর কাজই হলো মিথ্যা বিজ্ঞাপন দেওয়া। মিথ্যা বিজ্ঞাপন দিয়ে বেকারদের চাকরির প্রলোভন দেখানো। এখন উড়ালসড়ক আর কারখানার ছবি দিয়ে উন্নয়নের মিথ্যা দাবি করছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন প্রসঙ্গে যখন সব দলই কথা বলছে, তখন বসে নেই পশ্চিমবঙ্গের বাম ফ্রন্টও। বাম ফ্রন্টের শরিক দল সিপিএম এবং তার যুব ও ছাত্রসংগঠনের নেতাদের কথা অবশ্য ভিন্ন। তাঁরা মা উড়ালসড়ককে তৃণমূলের উন্নয়ন বলে মানতে নারাজ। তাঁদের ভাষ্য, উড়ালসড়কটি নির্মাণ করা হয় বাম ফ্রন্টের আমলে তত্কালীন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্যের হাত ধরে। এর নির্মাণকাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল ২০১২ সালের আগস্টে। তার আগেই ২০১১ সালে ক্ষমতার পালাবদল হওয়ায় নির্মাণকাজ শেষ করে মমতার সরকার।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন