default-image

পশ্চিমবঙ্গে আগামী বছরের এপ্রিলে রাজ্য বিধানসভার নির্বাচন হওয়ার কথা। বর্তমানে এই রাজ্যে দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় রয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূল কংগ্রেস। আগামী বছর রাজ্যের ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য যেমন লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস, তেমনি নতুন করে ক্ষমতায় আসার জন্য মাঠে নেমে পড়েছে বিজেপি। কিন্তু করোনা এবং আম্পানের কারণে এই রাজ্যে তেমন জোরেশোরে প্রচারে নামতে পারছে না বিজেপি বা তৃণমূল কংগ্রেস। তবে দুই দল করোনা ও আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের পাশে দাঁড়িয়ে পরোক্ষভাবে চালিয়ে যাচ্ছে নির্বাচনী প্রচার।

গতকাল সেই নির্বাচনী প্রচারের অংশ হিসেবে ভার্চ্যুয়াল প্রচারে অংশ নেন অমিত শাহ। অমিত শাহ করোনা ও আম্পানে কেন্দ্রীয় সরকারের অবস্থান, করোনা প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ এবং আম্পানে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের নানা প্রকল্প গ্রহণ এবং দুর্গতদের পুনর্বাসনের নানা দিক তুলে ধরে একহাত নেন পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারকে; বিশেষ করে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।

করোনাকে কেন্দ্র করে ভারতে লকডাউন শুরু হওয়ার পর ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে আটকে পড়া এই রাজ্যের শ্রমিকদের ফিরিয়ে আনার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার ‘শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন’–এর ব্যবস্থা করে। এই স্পেশাল ট্রেনকে কটাক্ষ করে মমতা বলেন, শ্রমিক নয়, ওগুলো করোনা এক্সপ্রেস ট্রেন। এরই জবাব দিতে গিয়ে অমিত শাহ গতকাল বলেন, ‘আমরা ২৩৬টি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেনে বাংলার তিন লাখ শ্রমিককে তাদের নিজ রাজ্যের ঘরে পৌঁছে দিয়েছি। এখন দিদি বলছেন, ওগুলো শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন নয়, করোনা এক্সপ্রেস ট্রেন।’

বিজেপির সাবেক সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ বলেন, ‘এই করোনা এক্সপ্রেস ট্রেনেই দিদি আপনাকে বিদায় নিতে হবে এই বাংলা থেকে। আমরা ক্ষমতায় আসব। তারপর এই বাংলাকে সোনার বাংলায় গড়বে বিজেপি। মাত্র ৯ থেকে ১০ মাস পর।’

অমিত শাহ বলেন, ‘এত দিন আপনারা এই বাংলায় কমিউনিস্ট ও তৃণমূলকে সুযোগ দিয়েছেন। এবার একবার বিজেপিকে সুযোগ দিন। বিজেপি এই রাজ্যে মোদিজির নেতৃত্বে সোনার বাংলা গড়ে দেবে। তিনি এ কথাও বলেন, দিদি বাংলার বাইরের বাঙালি শ্রমিকদের ক্ষতস্থানে যে নুন ছিটিয়ে দিয়েছেন, তা ভুলবে না বাংলার মৌসুমি শ্রমিকেরা।

অমিত শাহ বলেন, ‘কমিউনিস্টদের আমলেও এ বাংলা ভালো ছিল। দিদি এসে বাংলার শান্তি কেড়ে নিয়েছেন। বাংলায় চলছে হিংসার রাজনীতি। এই রাজ্যে দিদি যত হিংসা ছড়াবেন, তত বেশি করে এই রাজ্যে পদ্মফুল ফুটবে।’

অমিত শাহর এই ভাষণের পর রাজ্যের মন্ত্রী ও তৃণমূল নেতা অরূপ বিশ্বাস বলেছেন, ‘বিজেপি মানেই হচ্ছে কথার ফুলঝুরি। ওরা মিথ্যে কথা বলছে। মিথ্যে ছড়াচ্ছে। আগামী ১০০ বছরেও ওরা এই বাংলায় ক্ষমতায় আসতে পারবে না। এই বাংলায় ফের ক্ষমতায় আসবে মমতাই।’


তৃণমূল আরও বলেছে, মৌসুমি শ্রমিকদের গরু–ছাগলের মতো ফেরানো হয়েছে বাংলায়। এই ফেরানোকালে ৮০ জন শ্রমিকের মৃত্যুর দায় নিতে হবে এবার বিজেপিকে।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0