বিজ্ঞাপন

লাঙ্গি ভূঁইয়া ৩০ বছর ধরে খালটি কাটলেও তাঁর এ কাজে কেউ সাহায্যের হাত বাড়াননি। তাঁর এই বিরল সংগ্রামের কথা জানাজানি হওয়ার পর ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সয়লাব তাঁর কঠোর সংগ্রামের কাহিনিতে। লাঙ্গি ভূঁইয়া বলেন, ‘খালটি কাটতে আমার ৩০ বছর লেগেছে। এই খালের মাধ্যমে গ্রামের একটি পুকুরে পানি আনা হয়েছে। ৩০ বছর ধরে পাশের জঙ্গলে গবাদিপশু চরানোর পাশাপাশি খালটি খনন করি। এই কাজে আমাকে কেউ সাহায্য করেনি। গ্রামবাসী জীবিকার জন্য শহরে যায়। কিন্তু আমি থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।’

খালটি কাটতে আমার ৩০ বছর লেগেছে। এই খালের মাধ্যমে গ্রামের একটি পুকুরে পানি আনা হয়েছে। ৩০ বছর ধরে পাশের জঙ্গলে গবাদিপশু চরানোর পাশাপাশি খালটি খনন করি। এই কাজে আমাকে কেউ সাহায্য করেনি। গ্রামবাসী জীবিকার জন্য শহরে যায়। কিন্তু আমি থেকে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।
লাঙ্গি ভূঁইয়া, বিহার রাজ্যের গয়ার লাহথুয়ার কোথিলাওয়া গ্রামের বাসিন্দা

স্থানীয় বাসিন্দা পাতি মাঝি বলেন, ৩০ বছর ধরে তিনি (লাঙ্গি) একাই খালটি কেটেছেন। এটা পশুপালন ও সেচকাজে খুব কাজে আসবে। গয়ার বাসিন্দা স্কুলশিক্ষক রাম বিলাস সিং বলেছেন, প্রচুর লোক এই খাল থেকে সুবিধা পাবেন। তাঁর (লাঙ্গি) গৌরবময় ওই কাজের কথা এখন সবার মুখে মুখে। তিনি সবার কাছে পরিচিত হয়ে উঠছেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন