default-image

বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য পশ্চিমবঙ্গের বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের নির্বাচনী প্রচারের ওপর ২৪ ঘণ্টার নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ভারতের নির্বাচন কমিশন। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাতটা থেকে আজ শুক্রবার সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত দিলীপ ঘোষের ওপর এই নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে খড়গ পড়েছে বিজেপির রাজ্য সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসুর ওপরও।

সম্প্রতি দিলীপ ঘোষ বলেন, বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে ক্ষমতায় এলে হিন্দুদের তীর্থস্থান নবদ্বীপের পুণ্যভূমিতে কসাইখানা বন্ধ হবে। গোহত্যা বন্ধ হবে। ভবিষ্যতে আর কেউ মঠ, মন্দির ও ধর্মীয় স্থানের জমি দখল করতে পারবে না। দিলীপ ঘোষ আরও বলেছেন, এ রাজ্যে বিজেপি সুশাসন দেবে। থানায় পুলিশ থাকবে। সিভিক ভলান্টিয়ার দিয়ে থানা চালানো হবে না। হাসপাতালে থাকবে চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী।

দিলীপ ঘোষ আরও বলেছেন, শীতলকুচিতে যে চার যুবক কেন্দ্রীয় বাহিনীর গুলিতে মারা গেছেন, তাঁরা কেউ ঘটনাস্থলের ওই ভোটকেন্দ্রের ভোটার নন। অন্য এলাকা থেকে এসেছিলেন।

বিজ্ঞাপন

এসব মন্তব্যের পরই দিলীপ ঘোষের প্রচারে নিষেধাজ্ঞা দেয় নির্বাচন কমিশন। এ ছাড়া শীতলকুচির হত্যাকাণ্ড নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করার জন্য বিজেপির রাজ্য সম্পাদক সায়ন্তন বসুকে গতকাল নির্বাচন কমিশন শোকজ করে তাঁকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে জবাব দিতে বলা হয়েছে। এর আগে বিজেপির সাবেক রাজ্য সভাপতি ও কেন্দ্রীয় নেতা রাহুল সিনহাকেও বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য প্রচারে নিষেধাজ্ঞা জারি হয়েছিল।

এর আগে বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্বাচনী প্রচারেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

কাল শনিবার পশ্চিমবঙ্গে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে পঞ্চম দফার ভোট। রাজ্যের ৬টি জেলার ৪৫টি আসনে অনুষ্ঠিত হবে এই ভোট।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন