default-image

পশ্চিমবঙ্গে আসন্ন বিধানসভার নির্বাচনকে ঘিরে ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসে ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। এর ধারাবাহিকতায় আজ শুক্রবার মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করেছেন বনমন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়।

চলতি বছরের এপ্রিলে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা নির্বাচন হওয়ার কথা। সেই নির্বাচনকে সামনে রেখে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দল তৃণমূলে চলছে ভাঙন। এর আগে পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী, ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা পদত্যাগ করেছেন। আজ দুপুরে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর পদত্যাগপত্র পৌঁছে দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতার কাছে। এরপর রাজভবনে গিয়ে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের হাতে পদত্যাগপত্রের একটি কপি পৌঁছে দেন। রাজ্যপাল তাঁর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন।

পদত্যাগী মন্ত্রী রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, তিনি যথাযথ সম্মান পাননি দলে। বিষয়টি মুখ্যমন্ত্রী ও দলের শীর্ষ নেতাদের জানানো হলেও সঠিক বিচার পাননি। তাই আজ পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেন। তিনি বলেন, ‘আমি উত্তরবঙ্গে সফরকালে আমাকে না জানিয়েই আমার সেচমন্ত্রীর পদ কেড়ে নিয়ে আমাকে বনমন্ত্রী করা হয়। আমি খবরটি জানতে পারি টেলিভিশনে। এই সিদ্ধান্তকে সেদিন আমি মেনে নিতে পারিনি। আজ তাই মন্ত্রিসভা থেকে পদত্যাগ করলাম।’

বিজ্ঞাপন

রাজীবের পদত্যাগের পর তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, একটি বটগাছ থেকে দুটি পাতা ঝরে পড়লে বটগাছের কিছু হয় না। আবার নতুন করে পাতা গজায়। তাই রাজীবের পদত্যাগে দলের কোনো ক্ষতি হবে না। যাঁরা তৃণমূলকে ভালোবাসেন, তাঁরা কখনো দল ছাড়তে পারেন না। মমতার নেতৃত্বে তৃণমূল থাকবে। মানুষও এবারের নির্বাচনে মমতাকে ভোট দিয়ে জিতিয়ে আনবেন।

এদিকে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিতে যোগ দেওয়ার বিষয়ে কিছু না বললেও এ নিয়ে গুঞ্জন চলছে। বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেছেন, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিজেপিতে স্বাগত।

গত ১৯ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপি নেতা অমিত শাহর সামনে পশ্চিমবঙ্গের ৩১ জন নেতা, সাংসদ, সাবেক মন্ত্রী, বিধায়ক, পৌর নেতা বিজেপিতে যোগ দেন। এর মধ্যে ছিলেন রাজ্যের মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীসহ ১০ জন বর্তমান বিধায়ক, ১ জন তৃণমূলের বর্তমান সাংসদ, ১ জন সাবেক সাংসদ।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন