default-image

ভারতের কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে আবার সরব হয়েছেন দলটির প্রবীণ নেতা কপিল সিবল।

দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানায়, গতকাল রোববার কপিল সিবল কংগ্রেস নেতৃত্বের বিরুদ্ধে নতুন করে কথা বলেন।

সাম্প্রতিক বিহার বিধানসভা নির্বাচন ও অন্যান্য উপনির্বাচনে কংগ্রেসের বাজে ফলাফলের প্রেক্ষাপটে কপিল সিবল দলের নেতৃত্বের বিরুদ্ধে ফের সরব হলেন।

বিজ্ঞাপন

দল ঢেলে সাজানোর দাবিতে কংগ্রেসের ২৩ জন প্রবীণ নেতা মাস কয়েক আগে দলীয় নেত্রী সোনিয়া গান্ধীকে চিঠি লিখে তুমুল আলোচনার জন্ম দিয়েছিলেন। এই বিক্ষুব্ধ কংগ্রেস নেতাদের দলে কপিল সিবলও ছিলেন।

গতকাল দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে কপিল সিবল বলেন, জনগণ এখন আর কংগ্রেসকে কার্যকর বিকল্প হিসেবে দেখে না। দল যে সমস্যার মুখোমুখি, সে বিষয়টি দলের নেতৃত্ব আমলে নিচ্ছে না।

কপিল সিবল বলেন, কংগ্রেস জানে, তার সমস্যা কী। সমাধানও জানা আছে। কিন্তু তা স্বীকার করার ইচ্ছা নেই।

কপিল সিবল বলেন, ‘আমাদের মধ্যে কেউ কেউ কলম তুলে নিচ্ছেন, সামনে কংগ্রেসের কী করা উচিত, সে সম্পর্কে লিখছেন। কিন্তু আমাদের কথা শোনা হচ্ছে না।

উল্টো তারা (নেতৃত্ব) আমাদের পৃষ্ঠ প্রদর্শন করছে। ফলাফল কী, তা সবাই দেখতে পাচ্ছে। দেশের মানুষ, শুধু বিহার নয়, এমনকি যেখানে উপনির্বাচনও হচ্ছে, সেখানে নিশ্চিতভাবে কংগ্রেসকে কার্যকর বিকল্প হিসেব বিবেচনা করছে না।’

কংগ্রেসের আত্মদর্শনের সময় শেষ বলে মনে করেন কপিল সিবল। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, কংগ্রেস ওয়ার্কিং কমিটিতে এক সহকর্মী বলেছেন, কংগ্রেসের আত্মদর্শন হবে বলে তাঁর আশা। তবে কপিল সিবলের প্রশ্ন, যদি ছয় বছরেও কংগ্রেসের আত্মদর্শন না হয়, তাহলে এখন আর কী আশা করা যায়?

কপিল সিবল বলেন, ‘আমরা জানি, কংগ্রেসের সমস্যা কী? আমাদের সব উত্তরও জানা আছে। কংগ্রেসও সবকিছু জানে। কিন্তু তারা (নেতৃত্ব) তা স্বীকার করতে আগ্রহী নয়।

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0