বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

করোনা সংক্রমণের ঊর্ধ্বগতির মধ্যে নির্বাচন নিয়ে জনমত যাচাই করতে সমীক্ষাটি চালিয়েছে ডিজিটাল কমিউনিটি–নির্ভর একটি প্ল্যাটফর্ম। সেখানে নির্বাচনের বিপক্ষে ৩১ শতাংশ মানুষের মত দেওয়ার বিষয়টি উঠে এসেছে। পাশাপাশি ৪১ শতাংশ মানুষ চাচ্ছেন ভোট নিয়ে সব ধরনের রাজনৈতিক প্রচারণা ও জনসভা বন্ধ হোক। ২৪ শতাংশ বলছেন, জনসভা বন্ধ থাক, তবে নির্বাচন হোক। অপরদিকে ৪ শতাংশ বলেছেন, নির্বাচন করোনা সংক্রমণের ওপর কোনো প্রভাব ফেলবে না।

ভারতের ৩০৯টি জেলার ১১ হাজার মানুষের মতামত নিয়ে সমীক্ষাটি চালানো হয়েছে। এতে অংশ নিয়েছেন ৬৮ শতাংশ পুরুষ এবং ৩২ শতাংশ নারী। এ ছাড়া নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ৫ রাজ্যের ৪ হাজার ১৭২ জন ভোটারের মতামতও নেওয়া হয়েছে।

এদিকে ২২ জানুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের শিলিগুড়ি, আসানসোল, বিধাননগর ও চন্দননগর পৌরসভার নির্বাচন হওয়ার কথা রয়েছে। তবে করোনার কারণে তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক ও সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজ্যের সব ধরনের নির্বাচন আগামী দুই মাস বন্ধ রাখার প্রস্তাব দিয়েছেন। গত শনিবার দক্ষিণ ২৪ পরগনার ডায়মন্ড হারবারে এক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘করোনা আবহে এই পশ্চিমবঙ্গে সব ধরনের রাজনৈতিক এবং ধর্মীয় সভা বন্ধ রাখা হোক। এখন আমাদের রাজ্যবাসীর প্রাণ বাঁচানো মূল লক্ষ্য হওয়া উচিত।’

করোনা মহামারির হালনাগাদ তথ্য সরবরাহকারী ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস বলছে, শেষ ২৪ ঘণ্টায় ভারতে নতুন করে ১ লাখ ৮০ হাজার ৪৩৮ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়ে এ সময়ে মৃত্যু হয়েছে ১৪৬ জনের।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন