কলকাতায় করোনা প্রতারণায় আরেকজন গ্রেপ্তার

বিজ্ঞাপন
default-image

করোনা-আতঙ্কের সুযোগে কলকাতায় ছড়িয়ে পড়ছে একদল ভুয়া প্রতারক। তারা নিজেদের বড় হাসপাতালের কর্মী পরিচয় দিয়ে মানুষের কাছ থেকে নমুনা নিয়ে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমে দিচ্ছে ভুয়া রিপোর্ট। এ রকমই এক প্রতারককে গতকাল মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

গ্রেপ্তার করা ব্যক্তির নাম সৌমিত্র চৌধুরী। বয়স ৩৯। তিনি নিজের পরিচয় দিয়েছিলেন কলকাতার মেডিকা সুপার হাসপাতালের কর্মী হিসেবে। সৌমিত্রের বিরুদ্ধে ২০০ জনের নমুনা নিয়ে ভুয়া রিপোর্ট দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।

পুলিশ গতকালই প্রতারক সৌমিত্রকে আলিপুর আদালতে তোলে। আদালত সৌমিত্রকে তিন দিনের পুলিশ হেফাজত দিয়েছেন।

কলকাতার গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, ফাঁদে পড়ে অন্তত ২০০ মানুষ সৌমিত্রের হাতে তুলে দেন সোয়াব। সরকারি ধার্যকৃত সর্বোচ্চ ২ হাজার ২৫০ রুপি নেওয়ার কথা থাকলেও তিনি বিভিন্ন খরচের অছিলায় ৩ হাজার ৬০০ রুপি পর্যন্ত নেন। এরপর ভুয়া রিপোর্ট পাঠিয়ে দেন হোয়াটসঅ্যাপে।

রিপোর্ট নিয়ে কেউ কেউ সন্দেহ প্রকাশ করেন। তাঁরা অভিযোগ জানান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ অভিযোগ পেয়ে বুঝতে পারে, এটি প্রতারক চক্রের কাজ। পরে পুলিশ তদন্তে নেমে সৌমিত্রকে গ্রেপ্তার করে।

গত শনিবার পুলিশ একই রকম প্রতারক চক্রের তিন সদস্যকে গ্রেপ্তার করে। তাঁদেরও পুলিশ হেফাজতে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

করোনা প্রতিরোধে আজ বুধবার পশ্চিমবঙ্গে সরকারঘোষিত সাপ্তাহিক পুরোমাত্রার লকডাউনের এ মাসের প্রথম দিন শুরু হয়েছে।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আগেই ঘোষণা দিয়েছেন, রাজ্যে জুলাই মাসের শেষ দিকের মতো আগস্ট মাসেও সপ্তাহে দুদিন করে পুরোমাত্রায় লকডাউন চলবে। 

আজ থেকে শুরু হয়েছে আগস্ট মাসের প্রথম দিনের পুরোমাত্রার লকডাউন। আজ ছাড়াও এ মাসে লকডাউন হবে ৮,২০, ২১,২৭, ২৮ ও ৩১ আগস্ট। 

বিজ্ঞাপন
মন্তব্য পড়ুন 0
বিজ্ঞাপন