default-image

বিরোধপূর্ণ কাশ্মীর সীমান্তে গুলিবিনিময় বন্ধে রাজি হয়েছে ভারত ও পাকিস্তান। আজ বৃহস্পতিবার দুই দেশের সামরিক বাহিনী এ তথ্য জানিয়েছে। সাম্প্রতিক মাসগুলোতে এ সীমান্তে দুই দেশের সেনাদের মধ্যে প্রায়ই গুলিবিনিময় ঘটছে। এতে সীমান্ত এলাকায় বসবাসকারী মানুষের মধ্যে প্রাণহানি ও আহত হওয়ার ঘটনা ঘটছে। খবর রয়টার্সের

ভারত ও পাকিস্তানের সেনাবাহিনী আজ এক যৌথ বিবৃতিতে বলেছে, দুই দেশের পারস্পরিক স্বার্থে এবং সীমান্তে টেকসই শান্তি বজায় রাখতে উভয় দেশের কর্মকর্তারা মতবিরোধ ও উদ্বেগের কেন্দ্রে থাকা বিষয়গুলো বিবেচনায় আনতে সম্মত হয়েছেন।

কাশ্মীরের বিরোধপূর্ণ সীমান্ত তথা নিয়ন্ত্রণরেখায় শান্তি বজায় রাখতে ২০০৩ সালে যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সই করে পারমাণবিক শক্তিধর প্রতিবেশী এই দুই দেশ। তবে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ক্রমাগত এ চুক্তি লঙ্ঘন করে চলেছে উভয় পক্ষ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নয়াদিল্লির একজন কর্মকর্তা বলেন, যুদ্ধবিরতি ওই চুক্তির আংশিক লক্ষ্য ছিল, সীমান্তে যুদ্ধপরিস্থিতি কমিয়ে এনে বেসামরিক লোকজনের মধ্যে হতাহত হওয়ার ঘটনার অবসান ঘটানো। তিনি বলেন, ‘আমরা এখনো আশাবাদী, নিয়ন্ত্রণরেখাজুড়ে সহিংসতা ও উত্তেজনা কমে আসবে। তবে অনুপ্রবেশ ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড থামাতে এই রেখা থেকে মোতায়েন করা সেনাসদস্য কমিয়ে আনা হচ্ছে না।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন