default-image

নেতৃত্বের জন্য শরীর-স্বাস্থ্য জুতসই রাখাটা জরুরি। সে ক্ষেত্রে একটু বেকায়দায় আছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। খুক খুক ক্রনিক কাশি তো আছেই, আছে ডায়াবেটিসও। গত মঙ্গলবার দিল্লিতে এক অনুষ্ঠানে কেজরিওয়ালের এই কাশির ব্যাপারটি ধরা পড়ল ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চোখে। 
সহায়তায় এগিয়ে এলেন তিনি। পরামর্শ দিলেন তাঁর যোগগুরু এইচ আর নগেন্দ্রর কাছে যেতে।
মোদির পরামর্শ মেনে নিলে তাঁর যোগগুরু হবেন কেজরিওয়ালের কাশি সারানোর চিকিৎসক।
আজ টাইমস অব ইন্ডিয়া অনলাইনের খবরে জানানো হয়, নগেন্দ্র সূর্য ওঠার অনেক আগে ঘুম থেকে ওঠেন। আসলে তাঁর দিনই শুরু হয় গভীর রাতে। রাত দেড়টায় জাগেন তিনি। এর এক ঘণ্টা পর তিনি মগ্ন হন আড়াই ঘণ্টার যোগব্যায়ামে। নগেন্দ্র তাঁর যোগব্যায়াম ও আয়ুর্বেদের মাধ্যমে প্রায় দুই লাখেরও বেশি হাঁপানি রোগীর চিকিৎসা করছেন। নগেন্দ্র বলেন, ‘পুরোনো কাশি এবং ডায়াবেটিস কেজরিওয়ালকে দুর্বল করে দেবে।’
৭২ বছর বয়সী নগেন্দ্রর সঙ্গে মোদির পরিচয় আজ থেকে ১০ বছর আগে। তিনি স্বামী বিবেকানন্দ যোগ অনুসন্ধান সংস্থার সহ-প্রতিষ্ঠাতা। নগেন্দ্র একজন যন্ত্র প্রকৌশলী। তাঁর একটি পিএইচডি ডিগ্রিও আছে। এ ছাড়া মহাকাশবিজ্ঞানী হিসেবে নাসার সঙ্গে তাঁর যোগাযোগ রয়েছে। তিনি হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন পরামর্শক।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন