বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

রাজ্যের দেবভূমি দ্বারকা জেলার পুলিশ সুপার সুনীল জোশি জানিয়েছেন, শ্রীধর রমেশ চামেরা (৩২) নামের নিহত ওই জেলে মহারাষ্ট্রের বাসিন্দা। তিনিসহ আরও ছয়জন ‘জলপরি’ নামের একটি জেলেনৌকায় ছিলেন। এ সময় পাকিস্তানের মেরিটাইম সিকিউরিটি এজেন্সির সদস্যরা গুলি চালান। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। পরদিন রোববার রমেশের মরদেহ ওখা বন্দরে আনা হয়।

রমেশের বুকে তিনটি গুলি লেগেছিল বলে জানিয়েছেন নৌকাটির মালিক জয়ন্তিভাই রাথোড়। সাংবাদিকদের তিনি বলেন, গুলি চালানোর সময় তিনি নৌকার কেবিনের মধ্যে ছিলেন। এ সময় নৌকার ক্যাপ্টেনের শরীরেও গুলি লাগে। তাঁকে ওখার একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এদিকে জেলেকে হত্যার ঘটনায় ভারত তীব্র নিন্দা জানিয়েছে বলে এক সূত্রের বরাত দিয়ে উল্লেখ করেছে এনডিটিভি। পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে ওই সূত্র বলে, ‘বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। আমরা কূটনৈতিকভাবে বিষয়টি পাকিস্তানের কাছে তুলব। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। সময়মতো বিস্তারিত জানানো হবে।’

এর আগে চলতি বছরে ফেব্রুয়ারিতে পাকিস্তান জানায়, ২৭০ জেলে ও ৪৯ বেসামরিক লোক তাদের কারাগারে বন্দী আছেন। তাঁদের সবাইকে ভারতীয় বলে ধারণা করা হচ্ছে। অপর দিকে একই সময়ে রাজ্যসভায় ভারত সরকার জানায়, তাদের কাছে ৭৭ পাকিস্তানি জেলে ও ২৬৩ বেসামরিক মানুষ বন্দী আছেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন