দিল্লিতে মার্কিন নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগ

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে আরেক পর্যটক যৌন হয়রানির অভিযোগ করলেন। তিনি মার্কিন নারী। পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছেন, এ বছরই তিনি একবার ভারত সফরে গিয়ে একটি শীর্ষস্থানীয় হোটেলে গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন।
দিল্লি পুলিশ এ ঘটনার আনুষ্ঠানিক তদন্ত গত শনিবার শুরু করেছে। মার্কিন একটি বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) সাহায্যে ই-মেইলের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র থেকে ওই নারী দিল্লি পুলিশের কাছে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দিয়েছেন। পুলিশের যৌথ কমিশনার মুকেশ মিনা এএফপিকে বলেন, পুলিশ ওই মামলা নিয়েছে।
ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ সংবাদমাধ্যমে ওই গণধর্ষণের অভিযোগ জানতে পেরে ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের শাস্তি দিতে পুলিশের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।
স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায়, ওই নারী গত এপ্রিলে ভারত সফরে গিয়েছিলেন। কিন্তু গণধর্ষণের ঘটনাটির পর তিনি সফর সংক্ষিপ্ত করেই দেশে ফিরে যান। তিনি স্থানীয় ট্যুর গাইডের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। লোকটি আরও চারজনকে নিয়ে হোটেলকক্ষে তাঁর ওপর নির্যাতন চালিয়েছিলেন।
টাইমস অব ইন্ডিয়া লিখেছে, ওই নারী বলেছেন, তাঁকে ওই ট্যুর গাইড এক বোতল পানি দিয়েছিলেন। সেটা পান করার পর তাঁর মাথা ঘুরতে শুরু করে। এ সময় আরও চারজন লোক হোটেলকক্ষে ঢুকে ভেতর থেকে দরজা আটকে দেয়।
পুলিশ ওই নারীর বিবরণ অনুযায়ী সন্দেহভাজন অপরাধীদের খুঁজছে। হোটেলের নিরাপত্তা ক্যামেরার ছবিও যাচাই-বাছাই করে দেখছে।
ভারতে নারী পর্যটকদের ওপর যৌন হামলার ঘটনা আগেও অনেক ঘটেছে। পশ্চিমা বেশ কয়েকটি দেশ এ বিষয়ে ঝুঁকি সম্পর্কে পর্যটকদের সতর্ক করে দিয়েছে। ভারতের দক্ষিণাঞ্চলে গত মাসে ৩৫ বছর বয়সী এক জাপানি নারী হয়রানি ও ধর্ষণের শিকার হন। গত বছর পশ্চিমাঞ্চলীয় শহর জয়পুরে আরেক জাপানি নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছিলেন। ওই ঘটনার ছয় মাসের মধ্যেই জাপানের আরেক নারী কলকাতায় ধর্ষণের শিকার হন।