default-image

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার পূর্ব মেদিনীপুর জেলার নন্দীগ্রাম আসনে পিছিয়ে রয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই আসনে তাঁর প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপির প্রার্থী শুভেন্দু অধিকারী এগিয়ে আছেন। এবিপি আন্দন্দের সর্বশেষ খবরে বলা হয়, পঞ্চম রাউন্ডের ফল শেষে দেখা যায়, প্রায় ৩ হাজার ৬৮৬ ভোটে পিছিয়ে রয়েছেন মমতা।

স্থানীয় সময় আজ রোববার সকাল ৮টা থেকে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার ২৯২ আসনের ভোট গণনা শুরু হয়েছে। গত ২৭ মার্চ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত আট দফায় রাজ্য বিধানসভার ২৯২ আসনে ভোট হয়। সেই নির্বাচনের ফলাফল আজ গণনা করা হচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

আজ নন্দীগ্রামের দিকে সবার নজর। কারণ, এই আসনের প্রার্থী তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা। মুখ্যমন্ত্রী মমতার প্রতিদ্বন্দ্বী তাঁরই একসময়ের ডান হাত, মন্ত্রিসভার সাবেক সদস্য শুভেন্দু। তিনি গত ডিসেম্বরে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন।

নন্দীগ্রামে শুরুতে এগিয়ে ছিলেন মমতা। পরে শুভেন্দু এগিয়ে যান।

পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার দ্বিতীয় দফায় গত ১ এপ্রিল নন্দীগ্রামে ভোট হয়। এই দফার ভোটে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও আকর্ষণের কেন্দ্রে ছিল নন্দীগ্রাম।

নির্বাচনের পর বিপুল ভোটে জয়ী হওয়ার ব্যাপারে আশাবাদ ব্যক্ত করেছিলেন মমতা ও শুভেন্দু।

মমতা বলেছিলেন, তিনি নিশ্চিত, এই আসনে ৯০ শতাংশ ভোট পেয়ে তিনিই জিতবেন।

বিজ্ঞাপন

মমতা দৃঢ়তার সঙ্গে বলেছিলেন, ‘আমি নন্দীগ্রামের ভোট নিয়ে একদম চিন্তিত নই। এখানের মা-মাটি-মানুষের আশীর্বাদ নিয়ে আমিই জিতব। ৯০ শতাংশ ভোট পাব।’

অন্যদিকে, শুভেন্দু বলেছিলেন, তিনি অন্তত ৭০ হাজার ভোটের ব্যবধানে মমতাকে হারাবেন।

শুভেন্দু বলেছিলেন, তিনি আগে ঘোষণা দিয়েছিলেন, নন্দীগ্রামে মমতাকে ৫০ হাজার ভোটে হারাবেন। কিন্তু ভোট সম্পন্ন হওয়ার পর তিনি বলছেন, ৫০ নয়, ৭০ হাজার ভোটে মমতাকে হারাবেন।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন