বিজ্ঞাপন

নারদা দুর্নীতি মামলায় জড়িত থাকার অভিযোগে তৃণমূলের প্রবীণ নেতা, সাবেক মন্ত্রী ও নবনির্বাচিত বিধায়ক সুব্রত মুখোপাধ্যায়, তৃণমূল নেতা, কলকাতা পৌর করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও বর্তমান মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম ও সাবেক মন্ত্রী ও নবনির্বাচিত তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র এবং কলকাতা পৌর করপোরেশনের সাবেক মেয়র ও বর্তমান বিজেপি নেতা শোভন চট্টোপাধ্যায়কে গ্রেপ্তার করা হয়। রাতেই তাঁদের জামিন হলেও পরে তা বাতিল করা হয়। বর্তমানে তাঁরা কলকাতার প্রেসিডেন্সি কারাগারে আছেন। পরে তাঁদের জামিন খারিজের আদেশ পুনর্বিবেচনার জন্য কলকাতা হাইকোর্টে আবেদন জানান তাঁদের আইনজীবীরা। তবে অনিবার্য কারণে আজ বৃহস্পতিবার শুনানি অনুষ্ঠিত হয়নি।

২০১৬ সালের মার্চ মাসের রাজ্য বিধানসভার নির্বাচনের প্রাক্কালে তৃণমূল নেতা–মন্ত্রীদের ঘুষ নেওয়ার এক কেলেঙ্কারি ফাঁস হয়। তা নিয়ে কলকাতা হাইকোর্টের নির্দেশে ২০১৭ সালের মার্চ মাসে এই নারদা কেলেঙ্কারি মামলার তদন্তের ভার দেওয়া হয় ভারতের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআইয়ের হাতে। যদিও ২০১৬ সালে এই নারদ স্টিং অপারেশনের তথ্য ফাঁস হওয়ার পর প্রথম এই মামলার তদন্তভার গ্রহণ করে ভারতের এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি।

এদিকে পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য গতকাল কলকাতার গড়িয়া থানায় সিবিআইয়ের অনিয়ম ও অবৈধ কার্যক্রমের অভিযোগ এনে একটি মামলা দায়ের করেছেন। অন্যদিকে দিল্লিতে এক সমাজকর্মী ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ঘনশ্যাম উপাধ্যায় গতকাল সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন। মামলায় পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে রাজ্যে রাষ্ট্রপতির শাসন জারির আরজি জানানো হয়।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন