default-image

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি পশ্চিমবঙ্গে বাম, কংগ্রেস ও তৃণমূলের সমালোচনা করে বলেছেন, বাংলায় ১০ বছরের তৃণমূলের শাসনে পরিবর্তন আসেনি; বরং বাম শাসনের পুনর্জন্ম হয়েছে। বাম-কংগ্রেস-তৃণমূল এখন নির্বাচনী ম্যাচ ফিক্সিং খেলায় মেতেছে।

পশ্চিমবঙ্গের পূর্ব মেদিনীপুর জেলার শিল্প শহর হলদিয়ায় আজ রোববার বিকেলে এক জনসভায় যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন নরেন্দ্র মোদি। আসন্ন পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভার নির্বাচন সামনে রেখে তাঁর এই পশ্চিমবঙ্গ সফর।

পশ্চিমবঙ্গের মমতা সরকারের সমালোচনা করে মোদি বলেন, মমতার দীর্ঘ ১০ বছরের শাসনে এই বাংলার উন্নয়ন হয়নি। হয়েছে তৃণমূলের রাজনীতির দুর্বৃত্তায়ন। মানুষ এবার এক হয়েছে বাংলায় নতুন সরকার গড়তে। সেই সরকার এবার গড়বে বিজেপি। বাংলার শাসনে আসবে পরিবর্তন। তাই এবার চাই ডাবল ইঞ্জিন সরকার। অর্থাৎ কেন্দ্র ও রাজ্যে একদলের সরকার। এতে করে উন্নয়নের ধারা অব্যাহত থাকবে।
মোদি আরও বলেন, এই সরকারের আমলে কেবল কেন্দ্রের টাকা নয়ছয় হয়েছে। আম্পানের টাকা পায়নি বহু ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিরা। ত্রাণ বিতরণে দুর্নীতি হয়েছে। বাংলার এই সরকার দুর্যোগের সময়ও জড়িয়ে গেছে দুর্নীতিতে। বাংলার এই দুরবস্থার জন্য দায়ী মমতার সরকার। কেন্দ্র বাংলার জন্য বিনা মূল্যে রেশন ও ত্রাণ দিলেও তা ঠিকমতো পৌঁছায়নি বাংলার সরকার। দুর্নীতি করেছে।

বিজ্ঞাপন

মমতার সমালোচনা করে মোদি বলেছেন, ‘দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র চলছে, অথচ দিদি চুপ। ষড়যন্ত্রের জবাব দেওয়া হবে। আমরা বাংলার উন্নয়ন করতে চাইলেও বাধা আসে বাংলার বর্তমান সরকারের কাছ থেকে। তাই বাংলার উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হয়েছে। বিজেপি এলে এই বাংলায় উন্নয়ন হবে, শিল্প হবে, কর্মসংস্থান হবে, বেকার সমস্যার সমাধান হবে, বাংলায় ফিরে আসবে সুদিন।’

মোদি আরও বলেন, ‘কংগ্রেসের আমলে দুর্নীতি ছিল, বামদের আমলে উন্নয়ন থমকে ছিল, এখন বাংলায় শুধু অপরাধ আর হিংসার পুনর্জন্ম হয়েছে। বাংলার মানুষ তাই এবার পরিবর্তন চাইছে। এই মেদিনীপুরের মাটি ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগর, স্বাধীনতাসংগ্রামী ক্ষুদিরামের মাটি। আমি এই মাটিতে পা দিয়ে আজ ধন্য হয়েছি। তাই আমি মেদিনীপুরের মাটিকে কুর্নিশ জানাই।’

বিজেপি সূত্রে বলা হয়েছে, হলদিয়া থেকেই মোদি শুরু করলেন আসন্ন পশ্চিমবঙ্গের বিধানসভা নির্বাচনের প্রচার।

জনসভার পর মোদি যোগ দেন হলদিয়ায় আয়োজিত সরকারি অনুষ্ঠানে। হলদিয়ায় মোদি তিনটি প্রকল্প জাতির উদ্দেশে উৎসর্গ করেন এবং একটি প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।

এর আগে মোদি অবশ্য নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসুর ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে কলকাতার ভিক্টোরিয়া মেমোরিয়ালে আয়োজিত অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলেন গত ২৩ জানুয়ারি।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন