default-image

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লিতে আজ মঙ্গলবার থেকে রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা হয়েছে। দেশব্যাপী এক দিনে রেকর্ড এক লাখের বেশি করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতে গতকাল সোমবার প্রথমবারের মতো এক দিনে সর্বোচ্চ করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়। ইতিমধ্যে প্রায় আড়াই কোটি জনসংখ্যার নয়াদিল্লি ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ শহরে লোকজনের চলাফেরায় কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। মুম্বাইয়ে রাত্রিকালীন কারফিউ জারি হয়েছে আগেই।

দিল্লির স্থানীয় সরকার বলছে, হঠাৎ করোনা সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় কারফিউর মতো সিদ্ধান্ত জরুরি হয়ে পড়ে। প্রতিদিন রাত ১০টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত রাত্রিকালীন কারফিউ বলবৎ থাকবে।

এএফপির তথ্যমতে, দিল্লিতে গতকাল সোমবার এক দিনে ৩ হাজার ৫৪৮ জন করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত করা হয়। এর আগে গত নভেম্বরে শহরটিতে এক দিনে রেকর্ড ৯ হাজার করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত করা হয়েছিল। সে সময় ভারতে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত রোগী ছিলেন দিল্লিতে।

বিজ্ঞাপন

ভারতের সরকার এখন পর্যন্ত দেশজুড়ে নিষেধাজ্ঞা জারির সিদ্ধান্ত নেওয়া থেকে দূরে রয়েছে বলে জানিয়েছে এএফপি। তবে ভারতের সবচেয়ে ধনী রাজ্য মহারাষ্ট্রে গত রোববার থেকে লকডাউন ও রাত্রিকালীন কারফিউ জারি করা হয়। বর্তমানে দৈনিক শনাক্ত করোনা রোগীর অর্ধেকই ওই রাজ্যের।

এএফপির দেওয়া তথ্যমতে, শনাক্তের দিক থেকে ভারত বিশ্বের তিন নম্বরে আছে। যথাক্রমে যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রাজিলের পরই তাদের অবস্থান। ভারতে এখন পর্যন্ত প্রায় ১ কোটি ২৭ লাখ করোনা সংক্রমিত রোগী শনাক্ত হয়েছে, মৃতের সংখ্যা ১ লাখ ৬৫ হাজারের বেশি। এর মধ্যে গত এক সপ্তাহে দেশটিতে ৫ লাখ ৪৯ হাজার করোনা রোগী শনাক্ত করা হয়।

ভারতের স্বাস্থ্যমন্ত্রীর বরাত দিয়ে এএফপি জানিয়েছে, ভারতে এখন পর্যন্ত ৮ কোটি ৩০ লাখ মানুষকে করোনার টিকা দেওয়া হয়েছে। আগামী জুলাইয়ের মধ্যে ৩০ কোটি লোককে টিকা দেওয়া হবে।

ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন