default-image

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির একটি বেসরকারি হাসপাতালে সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় ২৫ জন গুরুতর অসুস্থ রোগীর মৃত্যু হয়েছে। আজ শুক্রবার সকালে সংশ্লিষ্ট হাসপাতালের বরাত দিয়ে এনডিটিভি অনলাইনের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

নয়াদিল্লির স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটেছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এ নিয়ে একটি বিবৃতি দিয়েছে।

বিবৃতিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলেছে, সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় ২৫ জন গুরুতর অসুস্থ রোগী মারা গেছেন। সকাল ৮টা নাগাদ হাসপাতালের কাছে যে পরিমাণ অক্সিজেন আছে, তাতে দুই ঘণ্টা চলতে পারে।

বিজ্ঞাপন

হাসপাতালটির পরিচালকের (মেডিকেল) বিবৃতিতে বলা হয়, ভেন্টিলেটর ও বিপিএপি যন্ত্র ঠিকভাবে কাজ করছে না। আইসিইউ ও ইমার্জেন্সিতে ম্যানুয়াল ভেন্টিলেশন অবলম্বন করা হচ্ছে।

বড় ধরনের সংকটের আশঙ্কা প্রকাশ করেছে গঙ্গা রাম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। বিবৃতিতে তারা বলেছে, আরও অন্তত ৬০ জন গুরুতর অসুস্থ রোগীর জীবন এখন ঝুঁকিতে রয়েছে।

উদ্ভূত পরিস্থিতিতে জরুরি হস্তক্ষেপ চেয়েছে গঙ্গা রাম হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ বলেছে, তাদের জরুরি ভিত্তিতে অক্সিজেন দরকার। জরুরি ভিত্তিতে আকাশপথে এই অক্সিজেন পাঠানো দরকার।

সূত্র বলছে, গঙ্গা রাম হাসপাতালে সবশেষ ২৪ ঘণ্টায় ২৫ রোগীর মৃত্যুর পেছনে অক্সিজেনের কম চাপের বিষয়টির ভূমিকা থাকতে পারে।

ভারতের রাজধানী নয়াদিল্লির অন্যতম শীর্ষ বেসরকারি হাসপাতাল হচ্ছে স্যার গঙ্গা রাম হাসপাতাল। হাসপাতালটিতে বর্তমানে ৫০০ জনের বেশি করোনা রোগী চিকিৎসাধীন বলে জানা গেছে।

ভারতে করোনাভাইরাস মহামারি পরিস্থিতির চরম অবনতি ঘটেছে। সংক্রমণ বাড়ার পাশাপাশি ভারতে মৃত্যুও বাড়ছে। ভারতের বিভিন্ন হাসপাতালে অক্সিজেন-সংকট ক্রমেই প্রকট আকার ধারণ করছে। রাজধানী নয়াদিল্লিসহ ভারতের উত্তর ও পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোর হাসপাতালে দ্রুতই অক্সিজেনের মজুত ফুরিয়ে আসছে বলে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা সতর্ক করেছেন।

বিজ্ঞাপন
ভারত থেকে আরও পড়ুন
মন্তব্য করুন